খুলনা শেষসীমানায় ট্রাক ও বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ, ঘটনাস্থলে ড্রাইভার নিহত

80

ডেক্স রিপোর্ট।।

শনিবার আজ আনুমানিক দুপুর২:০০ ঘটিকায় যশোর-খুলনার মধ্যবর্তী স্থান শেষ সীমানা নামক স্ট্যান্ডে খুলনা, কুষ্টিয়া, গড়াই স্পেশাল, সুস্মি নামক ঢাকা মেট্রো ব ১৪-৬৭২১ নম্বরের গাড়িটির সঙ্গে নিউ ফাইভ স্টার ব্রিকস, রূপদিয়া, যশোর থেকে আগত ইটবোঝাই ঢাকা মেট্রো ট ১৪-৮৭৮৫ নম্বরের ট্রাক এর সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষ ঘটার সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে ইট বোঝাই ট্রাকের চালক মোহাম্মদ আবু সালেহ (বয়স ৩৫) নিহত হন। অপরদিকে ট্রাকের কেবিনের মধ্যে অবস্থানরত একজন লেবার ও হেলপার তারা জীবিত আছেন। অবশ্য তাদের হালকা কেটে গেছে। ঘটনা ঘটার সঙ্গে সঙ্গে তাৎক্ষণিকভাবে ফুলতলা এবং অভয়নগর হাইওয়ে থেকে পুলিশ প্রশাসনের উপস্থিত হয়েছে। অপরদিকে গড়াই গড়ির ড্রাইভার ও হেলপার পালিয়ে গিয়েছে। ঘটনাস্থলে উপস্থিত জনগণ ও ইউপি সদস্য জনাব মোল্লা আলী আজম মোহন মহোদয়ের সঙ্গে কথা বলে জানা যায় শেষ সীমানা নামক স্থানের একটি স্পিডব্রেকার ক্রস করে পরবর্তী স্পিডব্রেকার গড়াই সুস্মি নামক বাসটি গতি না কমিয়ে গাড়িটি খুব দ্রুত চলায় এবং যাওয়ার সময় ইট বোঝাই ট্রাকটির সামনে মেরে দেয়। ইট বোঝাই ট্রাকটি তার নির্দিষ্ট অবস্থান বামপাশ গেসে আসছিল অথচ গড়ায় গাড়িটি বেপরোয়া চালানোর কারণে ডান সাইডের থেকে অবস্থান নিয়ে ট্রাকের ড্রাইভারের সোজাসুজি সংঘর্ষ হয়। নিহত এবং আহত ব্যক্তিদের ফুলতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্থানান্তর করা হয়েছে। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা কার্যক্রম চলছে। এছাড়াও উপস্থিত জনগণের সঙ্গে কথা বলে জানা যায় গড়াই গাড়িটি বেপরোয়া চালানোর কারণে আজ এ দুর্ঘটনার সংঘটিত হয়েছে এছাড়াও স্থানীয়রা দুঃখ প্রকাশ করে বলে গড়াই গাড়িটি অর্থাৎ খুলনা -কুষ্টিয়া এবং রুপসা বাস গুলির বেপরোয়া গতির কারণে প্রতিনিয়ত এ ধরনের দুর্ঘটনার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। এজন্য প্রতিদিন কোন না কোন মানুষকে মৃত্যুর সম্মুখীন হতে হচ্ছে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের, সড়ক ও যোগাযোগ বিভাগটি এবং স্থানীয় প্রশাসন এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবেন। পাশাপাশি এ ধরনের দুর্ঘটনা থেকে কিভাবে পরিত্রান পাওয়া যায় সেই পন্থা এবং তার বাস্তব প্রয়োগ ঘটিয়ে এই মৃত্যুর সংবাদ প্রতিনিয়ত শোনা থেকে আমাদেরকে মুক্তি দিবেন বলে স্থানীয় জনগণ ও ইউপি সদস্য আশাবাদ ব্যক্ত করেন।