বাধ্যতামূলক মাস্ক ব্যবহার ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে চললে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলা সম্ভব : কেসিসি মেয়র

15

খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, বাধ্যতামূলক মাস্ক ব্যবহার ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার মধ্য দিয়ে করোনা মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলা করতে হবে। বিশ্বের উন্নতদেশগুলো করোনা মোকাবেলায় সফলতার স্বাক্ষর রাখতে পারে নাই। কিন্তু বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার দিক নির্দেশনায় সংক্রমণের হার কমিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে। পাশাপাশি সরকার কর্মহীন মানুষের পাশেও দাঁড়িয়েছে। করোনার ভ্যাকসিন আমাদের কাছে না আসা পর্যন্ত সতর্কতামূলক ব্যবস্থা জোরদার রাখতে হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
সিটি মেয়র আজ মঙ্গলবার দুপুরে নগর ভবনের জিআইজেড মিলনায়তনে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধের লক্ষ্যে খুলনা সিটি কর্পোরেশন এলাকার জন্য গঠিত কমিটির এক সভায় সভাপতির বক্তৃতা করছিলেন। কেসিসি’র স্বাস্থ্য বিভাগ এ সভার আয়োজন করে।
সভায় সরকারি-বেসরকারি স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রে ‘নো মাস্ক নো সার্ভিস’ দৃশ্যমান স্থানে প্রদর্শন, কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জনসচেতনতামূলক প্রচারণা বৃদ্ধি, চলাফেরায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, শীত মৌসুমে উৎসব, পিকনিক, গেট-টুগেদার ইত্যাদি আয়োজনে নিরুৎসাহিত করা, কোভিড-১৯ উপসর্গ নিয়ে আগত রোগীদের এবং রোগীদের সংস্পর্শে আসা সকল ব্যক্তিকে নমুনা প্রদানে উদ্বুদ্ধ করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
কেসিসি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (অতিরিক্ত সচিব) পলাশ কান্তি বালা, গঠিত কমিটির সদস্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মুন্সী মোঃ রেজা শিকদার, সিভিল সার্জিন ডা. সুজাত আহমেদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) জিয়াউর রহমান, কেএমপি’র উপ পুশিল কমিশনার (সদর) মোহাম্মদ এহসান শাহ, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা-খুলনার পরিচালক প্রফেসর শেখ হারুনুর রশীদ, কমিটির সদস্য সচিব কেসিসি’র প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. একেএম আব্দুল্লাহ, স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ স্বপন কুমার হালদার, সহকারি স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ শরীফ শাম্মিউল ইসলাম, বিভাগীয় সমাজ সেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক কানিজ মোস্তফা, বিভাগীয় প্রাথমিক শিক্ষা কার্যালয়ের শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ আশরাফুল আলম, সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার (ডিজিস কন্ট্রোল) ডাঃ শেখ সাদিয়া মনোয়ারা প্রমুখ সভায় উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে সকাল ১০টায় সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক নগরীর কারিতাস মিলনায়তনে প্রকল্প অবহিতকরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন। জার্মান উন্নয়ন সংস্থার (জিআইজেড) সহযোগিতায় বেসরকারি সংস্থা ‘কারিতাস’ নগরীতে ‘আরবান ম্যানেজমেন্ট অব ইন্টারনাল মাইগ্রেশন ডিউ টু ক্লাইমেট চেঞ্জ-২’; ‘সাপোর্টিং ভালনারেবল কমিউনিটিস ইন স্লামস ডিউরিং দি কোভিড-১৯ প্যানডামিক’ এবং ‘আরবান ম্যানেজমেন্ট অব ইন্টারনাল মাইগ্রেশন ডিউ টু ক্লাইমেট চেঞ্জ-২’ প্রকল্প ৩টি বাস্তবায়ন করবে। প্রকল্পের আওতায় জলবায়ু পরিবর্তনজনিত উদ্বাস্তু এবং কোভিড-১৯ এর কারণে বিপদাপন্ন জনগোষ্ঠীকে চিহ্নিত করে তাদেরকে নগদ সহায়তা প্রদান করা হবে।
কারিতাস-এর আঞ্চলিক পরিচালক দাউদ জীবন দাস-এর সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (অতিরিক্ত সচিব) পলাশ কান্তি বালা। অন্যান্যের মধ্যে কেসিসি’র কাউন্সিলর শেখ মোশারাফ হোসেন, মোঃ মনিরুজ্জামান, মোঃ সাইফুল ইসলাম, চীফ প্লানিং অফিসার আবির উল জব্বার, স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ স্বপন কুমার হালদারসহ কারিতাস-এর কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সিডিসি ক্লাস্টার সদস্যগণ সভায় উপস্থিত ছিলেন।