সাকিবের ক্ষমা চাওয়াতে হতাশ ভারতের নানা হিন্দুত্ববাদী গোষ্ঠী

17

কলকাতায় যেয়ে কালীপূজা উদ্বোধন নিয়ে তৈরি বিতর্কের জেরে ব্যক্তিগত ইউটিউব চ্যানেলে দেয়া এক বার্তায় ক্ষমা চেয়েছেন ক্রিকেট অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। আর সাকিবের কালিপূজায় অংশগ্রহণ ও পরবর্তীতে এইজন্য ক্ষমা চাওয়ার কারণে হতাশ ভারতের বিভিন্ন হিন্দুত্ববাদী গোষ্ঠী। খবর বিবিসি বাংলা’র।

বিশ্ব হিন্দু পরিষদ নেতারা বিবিসিকে জানান, কালীপূজার অংশগ্রহণ নিয়ে ব্যক্তি স্বাধীনতা ও অধিকারের প্রতি সাকিব আরও মর্যাদা দেবেন বলেই আশা করা হয়েছিল।

ভারতে নির্বাসিত বাংলাদেশি লেখিকা তসলিমা নাসরিন বলেছেন, ক্ষমা চাওয়ার মধ্যে দিয়ে সাকিব আসলে হিন্দুধর্মকেই অপমান করেছেন।

বিশ্ব হিন্দু পরিষদের নেতা ড: সুরেন্দ্র জৈন বলেন, সাকিবের মতো তারকা ক্রিকেটারের কাছ থেকে তারা আরও নির্ভীক আচরণ প্রত্যাশা করেছিলেন। এটা দুর্ভাগ্য যে কালীপুজায় যাওয়ার অপরাধে বাংলাদেশে একজন তারকাকেও প্রাণের হুমকি দেওয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, সাকিব আল হাসানের মতো একজন নন্দিত ক্রিকেটার এই ইসলামী মৌলবাদের নিন্দা করবেন এটাই আমাদের প্রত্যাশা ছিল।

পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির সাবেক সভাপতি ও ত্রিপুরা ও মেঘালয়ের প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগত রায় বলেন, বাংলাদেশের মৌলবাদের বিরুদ্ধে ভারতে যথেষ্ঠ প্রতিবাদ হয়নি। হুমকি দিয়ে তাকে কালীপূজার উদ্বোধন থেকে নিরস্ত করা হলো কিন্তু তার বিরুদ্ধে ভারতে তেমন প্রতিবাদ হচ্ছে না এটা সবচেয়ে দুঃখের।

তবে আলোচিত ওই পূজার প্রধান উদ্যোক্তা ও তৃণমূল নেতা পরেশ পাল বিবিসিকে জানান, সাকিব নয় বরং তাদের পূজার উদ্বোধন করেছিলেন একজন হিন্দু সন্ন্যাসী আদ্যাপীঠের মুরালভাই।