সাব্বির হোসেন টিটুর হত্যার বিচার চায় স্বজনরা

44
নাদিম সিকদার/গোপালগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি 
বুধবার ৩০/৯/২০২০ তারিখে নড়াইল হতে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হয় মোঃসাব্বির হোসেন টিটু। এরপর থেকে তার কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। মোঃ সাব্বির হোসেন টিটু এম,ভি মেহেরিন ৭ নামক একটি জাহাজে কর্মরত ছিলো।
 মোঃসাব্বির হোসেন টিটুকে শ্বাস রুদ্ব করে হত্যাকরে কুখ্যাত খুনি রফিক হাওলাদার। পিরোজপুর জেলার কাউখালি উপজেলার শিয়ালকাঠি ইউনিয়নের আমজেদ হাওলাদারের পুত্র রফিক। মোঃসাব্বির হোসেন টিটুকে হত্যা শেষে  মধুমতী নদীতে ফেলা দেয়া হয়।কয়েকদিন পর স্থানীয় জনগন নদীতে লাশ দেখতে পেয়ে নরগাতী থানার পুলিশকে খবর দেন পুলিশ খবর পেয়ে নদী থেকে লাশ উদ্বার করে এবং বেওয়ারিশ লাশ হিসেবে নড়াইল সরকারি কবর স্থানে তাকে দাফন করে। এই দিকে লাশের স্বজন রা উপরস্থ কর্মকর্তাকে টিটুর নিখোঁজ এর কথা জানান। পরে কর্মকর্তা গন মোবাইল ট্রাকিং করে জাহাজের সন্ধান পায়। ওই জাহাজের একজন স্টাফ কে জাহাজের রসি ও ব্যাটারি বিক্রি করতে উঠতে দেখা যায় অতপর পুলিশ ঐ ব্যক্তিকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে  ঐ ব্যক্তির থেকে সকল ঘটনা বের হয়ে আশে। নড়াগাতী থানার ওসি জানান, আমরা সকল তদন্ত শেষ করে আসামীকে আদালতে পাঠাবো। এবং এই জঘন্য অপরাধের সুষ্ঠ বিচার হবে ইনশাআল্লাহ।  মৃত সাব্বির হোসেন টিটুর স্বজনরা ও স্থানীয় জনগন খুনির উপযুক্ত শাস্তি দাবি করে৷