যশোরের ভবদহে জলাবদ্ধতা নিরসনে জোয়ারাধারের দাবীতে মানববন্ধন

7

শেখ আলী আকবার সম্রাট  যশোর থেকেঃ

যশোরের অভয়নগর নওয়াপাড়া মোড়ে ভবদহ এলাকাকার জলাবদ্ধতা নিরসনে জোয়ারাধার(টাইটাল রিভার ম্যাইেৎমেন্ট) দাবীতে শতশত নারী – পুরুষ মানববন্ধন করেছে।
আজ  মঙ্গলবার সকাল ১০ টা থেকে ১২ টা পর্যন্ত যশোর-খুলনা মহাসড়কের নওয়াপাড়া নুরবাগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

অভয়নগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি,ভবদহ পানি নিষ্কাশন আন্দোলন কমিটির আহবায়ক এনামুল হক বাবুলের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, অভয়নগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ নেতা শাহ ফরিদ জাহাঙ্গীর,

উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সরদার অলিয়ার রহমান, নওয়াপাড়া পৌরসভার মেয়র সুশান্ত কুমার দাস,ভবদহ পানি নিস্কাশন আন্দোলন কমিটির সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান বিষ্ণুপদ দত্ত, মনিরামপুর উপজেলার নেহালপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান, ইউপি চেয়ারম্যান শেখর রায়, ইউপি চেয়ারম্যান বিকাশ রায় কপিল, মফিজ উদ্দিন,আওয়ামীলীগ নেতা সানা আব্দুল মান্নান, আইয়ুব হোসেন,শিক্ষকনেতা ফিরোজ আলম, অধ্যক্ষ মোতালেব সরদার প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ড ভুল পথে এগোচ্ছে। পারি উন্নয়ন বোর্ড নদী খননের নামে সরকারের কোটি কোটি টাকা অপচয় করছে। সাত দিন যাবত নদী খনন করে যে টুকু গভির হচ্ছে এক জোয়ারে তার চেয়ে বেশি পলি জমা হচ্ছে। জোয়ারাধারের মাধ্যমে নদীর নব্যতা ফেরানোর একমাত্র পথ। বর্তমানে ভবদহ এলাকার কোন বিলে টিআরএম চালু না থাকায় নদী নাব্যতা হারিয়েছে। এ অবস্থায় পানি নিস্কাশনের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। ইতিমধ্যে ৪০ টি গ্রামে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। প্রায় লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। পানি নিস্কাশনের বিকল্প পথ আমডাঙ্গা খালটি সংস্কারের অভাবে পানি সরতে পাছে না। বক্তারা অবিলম্বে আমডাঙ্গা খাল সংস্কার ও বিল কপালিয়ায় টিআরএম (টাইটাল রিভার ম্যানেজম্যান্ট) চালু ও গণবিরোধী ৮’শ ৮ কোটি টাকার প্রস্তাবিত প্রকল্প বাতিলের দাবী জানান। উক্ত কমিটি আজ বুধবার যশোর প্রেসক্লাবে সংবাদ সন্মেলন এবং এক সপ্তাহের মধ্যে যশোরের স্থানীয় সাংসদদের সাথে নিয়ে পানি সম্পদ মন্ত্রনালের মন্ত্রীর সাথে বৈঠকের ঘোষনা দেন।
ইতিমধ্যে ভবদহ এলাকার নিন্মাঞ্চলের প্রায় ৪০ টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। রাস্তাঘাট, বাড়িঘর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান,ধর্মীয় উপসানলয় পানিতে তলিয়ে গেছে। গত কয়েকদিন বৃষ্টিপাতের কারণে এ জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। চরম দুর্ভোগে পড়েছেন এলাকার মানুষ। দেখা দিচ্ছে মানবিক বিপর্যয়।