খুলনা স্বাস্থ্য বিভাগের মাস ব্যাপি অভিযান ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অনিয়ম

53

খুলনা ব্যুরো।

খুলনা মহানগর ও ৯ উপজেলায় বিভিন্ন ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার অভিযানের মাধ্যমে স্বাস্থ্য বিভাগের কার্যক্রম আজ শনিবার শেষ হয়েছে । করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের অংশ হিসাবে জনস্বার্থে প্রায় মাস ব্যাপি এ অভিযান কার্যক্রম শেষ হয়। খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ও সিভিল সার্জনের যৌথ উদ্দোগে গেল ৩ আগষ্ট থেকে অভিযান কার্যক্রম শুরু হয়। খুলনা পঙ্গ ও জেনারেল হাসপাতাল, খুলনা প্যাথলজী,ইসলামী ব্যাংক হাসপাতাল,আস্থা ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ডা: বাদশাহমিয়া মেমোরিয়াল ক্লিনিক, ডায়াগনস্টিক সেন্টার, কিওর হোম জেনারেল হাসপাতাল,সিটি ইমেজিং সেন্টার, আদ-দ্বীন আকিজ মেডিকেল কলেজ প্যাথলজি বিভাগ, আব্দুল্লাহ প্যাথলজি এবং শামেলা ক্লিনিক, অংকুর ডায়াগনস্টিক সেন্টার, রয়েল ডায়াগনস্টিক সেন্টার, খুলনা আই হাসপিটাল ও সুরক্ষা ক্লিনিক সহ ৯ উপজেলায় বিভিন্ন ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার পরিদর্শনে করেন খুলনা বিভাগীয় পরিচালক ডাঃ রাশেদা সুলতানা, উপ-পরিচালক ডাঃ শারমিন নাজনীন ও সিভিল সার্জন সুজত আহম্মদ । এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে পরিদর্শনে অংশ নেন ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ সাইদুল ইসলাম, ডাঃ মাহবুবুল ইসরাম, খুলনা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার ( রোগ নিয়ন্ত্রন) ডাঃ শেখ সাদিয়া মনোয়ারা ঊষা ও ডাঃ সাবরিনা স্নিগ্ধা। ক্লিনিক, হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার পরিদর্শনকালে অভিযানও করেন স্বাস্থ্য বিভাগ । আজ শনিবার বিকাল ৫টায় এই অভিযান শেষ করেন স্বাস্থ্য বিভাগ ।
এ সময় মেয়াদ উত্তীর্ণ রিয়েজেন্ট রাখা, নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় রিয়েজেন্ট সংরক্ষণ না করা, সঠিকভাবে বর্জ্য অপসারণ না করা, প্যাথলজিস্ট ছাড়াই রিপোর্ট দেয়া সহ অনিয়ম ধরা পড়ে। তবে এ বিষয়ে ক্লিনিক, হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার উদ্দোগ গ্রহন করা হয়নি।