অভয়নগরের বাশুয়াড়ী ক্যাম্প পুলিশের নির্মম নির্যাতন

109

স্টাফ রিপোটার

যশোর জেলার অভয়নগর উপজেলার ৭নং শুভরাড়া ইউনিয়নের বাশুয়াড়ী পুলিশ ক্যাম্পের দুদারগার বিরুদ্ধে এক আসামীর উপর নির্মম নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়াগেছে। ভুক্তভূগি নির্যাতনের বর্ণনা দিয়ে যশোর পুলিশ সুপারের কাছে একটি লিখিত প্রদান করে সহযোগিতা কামনা করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, স্থানীয় জাহাঙ্গীরের কন্যা অভিযোগ কারীর বড় পুত্রের সাথে দীর্ঘ দিনের প্রেমের সম্পর্ক থাকায় উভয়ে প্রেমের টানে অজানার উদ্দেশ্য পালিয়েছে। জাহাঙ্গীর কন্যা হারিয়ে প্রসাসনের দারস্থ হওয়াতে ১৫/০৭/২০২০ তারিখে একই গ্রামের মো: গোলাম শেখের ছেলে হাফিজুর রহমান কে বাশুয়াড়ী পুলিশ ক্যাম্পের এস আই জাকির হোসেনের নেতৃত্বে এ এস আই আইনাল হক বাড়ী থেকে দুপুর দুইটার সময় গ্রেফতার করে বাশুয়াড়ী পুলিশ ক্যাম্পে নিয়ে নির্মম নির্যাতন করে। অভিযোগ থেকে আরো জানাযায় নির্মম নির্যাতনের পর এসআই জাকির হোসেন হাফিজুর রহমাকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য ৩০,০০০/-(ত্রিশ হাজার টাকা) দাবীকরে একপর্যায়ে একই গ্রামের মৃত রাজ্জাক মোল্যার ছেলে শাহাদৎত মোল্যার মাধ্যমে উক্ত টাকা ২দিনের মধ্য পরিশোধ করার শর্তে রাতে অভিযোগ কারীকে শাহদৎত মোল্যার জিম্মায় ছেড়েদেয়। এবিষয়ে হাফিজুর রহমান জানালেন তারছেলে কোথায় আছে সে তা জানেননা তারপর ও এস আই জাকির ও এ এস আই আইনাল হক তাকে বাড়ীথেকে তুলেনিয়ে ক্যাম্পে নিয়ে বাঁশের লাঠি দিয়ে বেদম পিটিয়েছে। আঘাতে চিন্হ দেখতে চাইলে তিনি দেখালেন তার পিটেরউপর দু’রানের পিছন দিক ও নিতম্বরের উপর অসংখ্য আঘাতের চিন্হ রয়েছে। এদিকে পুলিশের এই লোম হর্ষক নির্যাতনের অতঙ্কের কথা ছড়িয়ে পড়েছে সর্বমহলে যা দেখে হতবাক গোটা এলাকা।

এ ব্যাপারে বাশুয়াড়ী ক্যাম্প ইনচার্জ এর মুঠোফোনে (০১৭২২……৫৯)  যোগাযোগ করা হলে তাকে ফোনে পাওয়া যায়নি।

মানবাধিকার কর্মী শেখ ইউনুস আলী জানান, পুলিশি প্রহরায় এনে কোন ব্যক্তিকে পিটানো মানবাধিকার লংঘনের শামিল। সুতরাং কোন অভিযোগ ছাড়াই হাফিজুর কে গ্রেফতার করে পিটিয়ে আবার ছেড়ে  দেওয়ার কাজটি বাশুয়াড়ি ক্যাম্প পুলিশকে প্রশ্নবিদ্ধ করে ।