সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবিতে ডুমুরিয়ায় মানববন্ধন

25

ডুমুরিয়া থানা প্রতিনিধি
গত ৩ জুলাই চাঁদার দাবিতে ডুমুরিয়ায় সাবেক ইউপি সদস্য ও ঘের ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে জখম করা হয়। ধার্ষ্যকৃত চাঁদা না পেয়ে, সন্ত্রসীরা সাবেক ইউপি সদস্য বিশিষ্ট ঘের ব্যবসায়ী ও স্থানীয় একটি বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক অনুকুল মন্ডলকে (৫২) ঘটনার রাতে একদল চিহ্নিত সন্ত্রাসী হাঁতুড়ি পিটা ও কুপিয়ে জখম করে নগত টাকা-স্বর্ণের চেইনসহ প্রায় দেড় লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।
ঘটনায় মামলা হলে ও ১০ দিনে গ্রেফতার হয়নি কোন আসামি। এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে গত রবিবার ইউপি চেয়ারম্যান বিমল কৃষ্ণ সানার উপস্থিতিতে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার পূর্বক শাস্তির দাবিতে এলাকাবাসী কর্তৃক মাগুরখালী ইউনিয়নের বিভিন্ন বাজার ও এলাকায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
ডুমুরিয়া থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বিল্পব জানান, আসামিরা পলাতক রয়েছে। তাদের গ্রেফতার করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, ঘটনাটি ঘটে ৩ জুলাই শুক্রবার রাতে খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার মাগুরখালী ইউনিয়নের আমড়বুনিয়া বাজার এলাকায়। আহত অনুকুল খুলনা মেড়িকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলো এবং বর্তমান তিনি বাম চোখে কিছু দেখতে পাচ্ছেননা।
এ ঘটনায় অনুকুলের স্ত্রী মিতা রানী মন্ডল বাদী হয়ে ঘটনার পরদিন শনিবার দুপুরে থানায় একটি অভিযোগ করে।
থানার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মাগুরখালী গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য ও বিশিষ্ট ঘের ব্যবসায়ী অনুকুল মন্ডল শুক্রবার রাতে তার ব্যবসা প্রতিষ্টান থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে একই এলাকার আমড়বুনিয়া বাজারের কাছাকাছি পৌছালে ওই এলাকার এক সময়কার ত্রাস সজল ওরফে বাবু মন্ডল, শুভ মন্ডল, স্বপন মন্ডল, বাপী মন্ডলসহ ১০-১১ জনের একটি সংঘবদ্ধ দল অনুকুল মন্ডকে ঘিরে ফেলা হয়। এরপর তাকে হাঁতুড়ি পিটা ও দা দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করা হয়। এ সময় সস্ত্রাসীরা অনুকুলের গলায় থাকা দেড় ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন, যার মুল্য ৯০ হাজার টাকা ও নগদ ৫ হাহার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। অনুকুল স্থানীয় ইউনিয়ন আ’লীগের সদস্য বলে জানা গেছে।
মানববন্ধনে আরো উপস্থিত ছিলেন কয়েক জন ইউপি সদস্য, শিক্ষক, সাংবাদিক সহ সর্ব স্তরের জনগণ।