খুলনায় করোনা ভাইরাস উপসর্গ নিয়ে তিনজনের মৃত্যু

16
খুলনা থেকে জাহিদুর রহমান 
সোমবার দিবাগত রাত ১১টা থেকে মঙ্গলবার ভোর ৫টার ভীতরে খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে করোনা ভাইরাস উপসর্গ নিয়ে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যু ব্যক্তিরা হলেন খুলনা মহানগরের বাবু খান রোডের মৃত সুলতান আলীর ছেলে পান্না ওয়াজেদ (৭০), টুটপাড়ার মৃত সৈয়দ আলীর ছেলে মহাসিন খোকন (৫৫) ও নড়াইল সদর উপজেলার মহেশখোলা গ্রামের মৃত আক্কাস শেখের ছেলে কাশেম শেখ (৩৬)। খুমেক হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক (আরএমও) ও করোনা ওয়ার্ডের মুখপাত্র ডা. মিজানুর রহমান জানান, জ্বর ও শ্বাসকষ্ট অবস্থায় পান্না ওয়াজেদকে সোমবার বিকেল ৫টায় খুমেক হাসপাতালের করোনা সাসপেকটেড আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। এছাড়া তিনি বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার ভোর ৫টার দিকে তার মৃত্যু হয়। অপরদিকে করোনা উপসর্গ নিয়ে নগরের টুটপাড়ার সরকারি সুন্দরবন কলেজ এলাকার মহাসিন খোকন সোমবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে হাসপাতালে ভর্তি হন। দু’দিন ধরে তিনি জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ১১টার দিকে তার মৃত্যু হয়। এছাড়া জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে কাশেম শেখ সোমবার বিকেল সোয়া ৫টায় খুমেক হাসপাতালের করোনা সাসপেকটেড আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি হন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় দিনগত রাত পৌঁনে ২টার তার মৃত্যু হয়। করোনা পরীক্ষার জন্য তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে বলে জানান ডা. মিজানুর রহমান। করোনা উপসর্গ নিয়ে এ পর্যন্ত খুমেক হাসপাতালে ৬০ জনের মৃত্যু হয়েছে।