খুমেক হাসপাতালে নার্সিং সুপারভাইজার জেসমিন নাহারের বদলি আদেশ প্রত্যাহারে দাবিতে প্রতিবাদসভা

51

স্টাফ রিপোর্টার
খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সিনিয়র নার্সিং সুপারভাইজার জেসমিন নাহারের আকস্মিক বদলির আদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে বুধবার সকাল ১০টায় খুমেক হাসপাতাল কনফারেন্স রুমে এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। স্বাধীনতা নার্সেস পরিষদের খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সভাপতি কল্পনা রানী পালের সভাপতিত্বে প্রতিবাদসভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় সিনিয়র নার্স জেবুন্নেছা খানম তার বক্তব্যে বলেন, নাসিং সুপারভাইজার জেসমিন নাহারের বদলি একটি ষড়যন্ত্রমূলক ও প্রতিহিংসার প্রতিফলন। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন নার্স রোকেয়া খাতুন, গুলশান পারভীন, সূতা পা শিকদার, ঝর্ণা খানম, মাজেদা পারভীন, শামীমা ইয়াসমিন, ফরিদা পারভীন, মমতাজ বেগম, কামনা বৈদ্য, শীলা রানী সরদার, ইব্রাহিম সরদার, বিশ্বজিৎ প্রমুখ।
এ ব্যাপারে কথা হয় নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তর মহা-পরিচালক সিদ্দিকা আক্তারের সাথে। তিনি জানান, এই বদলির বিষয় নিয়ে এই মুহুর্তে আমার কাছে কোন তথ্য নেই, পরবর্তীতে যোগযোগ করলে বিস্তারিত জানাতে পারব।
জানাযায়, গত ১৫ জুন খুমেক পরিচালকের স্বাক্ষরিত একটি প্রত্রআদেশে নাসিং সুপারভাইজার জেসমিন নাহারকে ভারপ্রাপ্ত সেবা তত্ত্বাবধায়কের দায়িত্ব দেওয়ার কারণে একটি পক্ষের মধ্যে গাত্রদাহ শুরু হয়। এরই অংশ হিসেবে ওই পক্ষটি জেসমিন নাহারের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার করতে থাকে। এমনকি দায়িত্ব গ্রহণের মাত্র ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তর থেকে (স্টান্ড রিলিজ) বদলি আদেশ জারি করা হয় । এই বদলি আদেশটি রহস্যজনক বলে মনে করেন স্বাধীনতা নার্সেস পরিষদের নেতৃবৃন্দ।

এছাড়া এই করোনা মহা বিপর্যয়ের মধ্যে খুমেক হাসপাতাল থেকে প্রায় ১০০ কি:মি: অদূরে যশোর-ঝিকরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জেসমিন নাহারকে বদলি একটি অমানবিক সিদ্ধান্ত বলে সচেতন মহল মনে করেন।