অভয়নগরে স্বামীর সংসার ফিরে পেতে স্ত্রীর ২০ দিন ধরে অনশন

108

মেহেদী হাসান ইরান, স্টাফ রিপোর্টার

গৃহবধূ সালমা
গৃহবধূ সালমা

অভয়নগরের স্বামীর সংসার ফিরে পেতে ও ৯ বছরের দাম্পত্য জীবন ধরে রাখতে সালমা নামে এক অসহায় গৃহবধূ স্বামীর বাড়ীতে ২০ দিন ধরে অনশন করে চলেছে। ঘটনা টি ঘটেছে অভয়নগর উপজেলার ৭ নং শুভরাড়া ইউনিয়নের ইছামতি গ্রামের মালেক শিকদারের পুত্র উজ্বল শিকদারের বাড়ীতে। জানাগেছে উজ্বল শিকদারের স্ত্রী সালমা বেগমের সাথে তার ২০১১ সালে পরিচয় হয় পরে সালমা বেগম তার যশোরের পুরাতন সংসার ভেঙ্গে প্রতারক উজ্বলের সাথে পালিয়ে ভারতে অবস্থান করে। ২০১২ সালে তাদের বিবাহ হয় । বিবাহের পর থেকে উজ্বল তার স্ত্রীকে ভারতের পতিতালয়ে দীর্ঘ ৮ বছর যাবৎ জোর করে দেহব্যবসা করিয়ে প্রচুর অর্থ উপার্জন করে। দেশে এসে সম্প্রতি উজ্বল তার স্ত্রীকে তালাক দিয়েছে বলে সূত্র নিশ্চিত করেছে । তবে সালমা বেগম গত ২৭ মে ২০২০ থেকে নিজ বাড়ীতে অবস্থান করলেও স্ত্রী হিসাবে তাকে গ্রহন করে আর ঘরে থাকতে দেয়নি উজ্বল ও তার সংসারের লোক জন। এ বিষয়ে ভুক্তভূগি সালমা বেগম জানালেন বিবাহের ১ বছর আগ থেকে উজ্বল তাকে দিয়ে ভারতের বোম্বের একাধিক পতিতালয়ে দীর্ঘাদিন রেখে প্রচুর টাকা উপর্যন করে ইছামতি গ্রামে নিজ নামে জমি কিনে সেখানে দালান বাড়ী করেছে,পুকুর কাটা সহ একাধিক জায়গাতে জমি কিনেছে। ঘটনা স্থলে গিয়ে দেখাযায় সালমা বেগম তার বাড়ীতে একা এক কাপড়ে প্রায় অভূক্ত অবস্থায় অসুস্থ হয়ে পড়েছে।

এবিষয়ে স্থানীয় মেম্বর আতিয়ার রহমান ব্লু জানালেন উজ্বলের বউ ইন্ডিয়ায় গিয়ে দেহব্যবসা করে টাকা ইনকাম করে উজ্বল কে দিয়েছে একথা সত্য। বাড়ীতে গিয়ে উজ্বলকে না পেয়ে তার ব্যবহৃত ০১৯১২৬৬৬৭৬১ নম্বরে একাধিক বার যোগাযোগ করলে ও তিনি ফোন রিসিভ করেনি।