গোপালগঞ্জের কাঠমিস্ত্রী কমলেশ হত্যার খুনিদের দ্বায় স্বীকার

139
হিমেল সরকার-ষ্টাফ রিপোর্টার    
গত ২৬মে  গোপালগঞ্জ জেলার কোটালীপাড়া থানার তালপুকুরিয়া গ্রামের কমলেশ বাড়ৈ(৪৫) কে খুন করে লাশ গুম করার দায়ে মৃতের স্ত্রী সুবর্না বাড়ৈ(৩৫) ও তার পরকিয়া প্রেমিক মনমতো বাড়ৈ(৪০) পিতাঃ মৃত মাহেন্দ্র বাড়ৈ,  সাং তালপুকরিয়া, থানাঃ কোটালীপাড়া, জেলাঃ গোপালগঞ্জ কে কোটালীপাড়া ও রাজৈর হতে গ্রেফতার ও কমলেশের কঙ্কালসদৃশ মৃতদেহ উদ্ধার করা হয় এবং জিজ্ঞাসাবাদে সুবর্না ও তার পরকিয়া প্রেমিক মনমতো বাড়ৈ মিলে কমলেশকে হত্যার  কথা স্বীকার করে।
উল্লেখ্য, গত ২ মার্চ, ২০২০ খ্রিঃ দিবাগত রাতে মনমতো বাড়ৈ কর্তৃক সরবরাহকৃত ঘুমের ঔষধ সুবর্না খাবারের সাথে খাওয়ালে তার স্বামী কমলেশ অচেতন হয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। এরপর মনমতো ও সুবর্না সুযোগমত গলায় গামছা পেছিয়ে কমলেশকে হত্যা করে এবং লাশ বহন করে প্রায় ৪০০ মিটার দুরে নিয়ে মাছের ঘেরের মাটিতে গর্ত করে ঢেকে রাখে। গত ২৬/০৫/২০ খ্রিঃ কোটালীপাড়া থানার এসআই আঃ করিম কর্তৃক কমলেশের নিখোঁজ সংক্রান্তে এন্ট্রিকৃত জিডি তদন্ত করতে গিয়ে উক্ত ঘেরের মাটি খুড়ে কমলেশের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। এরপর প্রযুক্তিগত সহায়তায় অভিযান পরিচালনা করে কোটালীপাড়া ও রাজৈর হতে উভয় আসামীকে মাত্র ৮ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার করা হয়।
অদ্য ২৭/০৫/২০২০ খ্রিঃ  আসামী সুবর্না ও মনমতো ভিকটিম কমলেশকে হত্যার দায় স্বীকার করে ম্যাজিট্রেটের নিকট ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী প্রদান করে।