ঈদের আগে ত্রান পেল শিলই ইউনিয়নের ৪০০ পরিবার

10
আরিফুর রহমান সেতু, সিনিয়র ষ্টাফ রিপোর্টার
করোনায় কর্মহীন হয়ে দিশেহারা হয়ে আছে বিভিন্ন শ্রেনীপেশার মানুষ।  ঈদের আগে ত্রান পাওয়ায় কিছুটা হলেও দুর হয়েছে অসহায় মানুষের দুর্দশা। মঙ্গলবার (১৯শে মে) বেলা ১১ টা নাগাদ মুন্সীগঞ্জের সদর উপজেলার শিলই ইউনিয়নের ৪০০ পরিবারের মাঝে জি আর ত্রান বিতরন করা হয়। ত্রান বিতরনের সময় উপস্থিত ছিলেন শিলই ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল হাসেম লিটন,  উপজেলা ট্যাগ অফিসার, সকল ইউ পি সদস্য সহ এলাকার গন্য মান্য ব্যক্তি বর্গ। এ সময় বরাদ্দকৃত ৪ মেট্রিক টন চাল বিতরন করা হয়।  সব মিলিয়ে এ পর্যন্ত ১২.৫০ মেট্রিক টন জি আর চাল করোনাকালীন সময় শিলই ইউনিয়নে হতদরিদ্রের মাঝে বিতরন করা হয়েছে।
এ সময় উপস্থিত জনসাধারণের কাছে তাদের অনুভূতি জানতে চাইলে তারা বলেন, সরকার আমাদের ঈদের আগে ত্রান দেয়াতে আমরা খুশি হয়েছি।  আমদের মাঝে আজ অনেকেই আছেন যারা কখনোই হাত পাতেননি কিন্তু আজ করোনায় কাজ না থাকায় অসহায় হয়ে হাত পাততে হয়েছে।  সরকার আমাদের কথা ভেবে ঈদের আগেই সহায়তা করেছেন তার জন্য আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট কৃতজ্ঞ।  তবে সরকারের পাশাপাশি আমাদের শিলই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল হাসেম লিটন, তিনি এই বিপদে আমাদের পাশে যেভাবে আছেন তা কল্পনাতীত।  তার ব্যক্তিগত তৎপরতায় কেউ যদি সরকারী সহায়তা না পান তখন নিজে তাকে চাল কিনে দিচ্ছেন।  তার কল্যানেই শিলই ইউনিয়নের সকলের ঘরে খাবার আছে।
শিলই ইউনিয়ন পরিষদ  চেয়ারম্যান এবং ইউনিয়ন আওয়ামিলীগ সভাপতি আবুল হাসেম লিটন সি আই এন টিভি ২৪ অনলাইনকে বলেন, আমি যতটুকু পারছি চেস্টা করে যাচ্ছি।  তবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনা মোকাবেলায় যে সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন,  তার অনুপ্রেরনায় আজ আমরা মাঠে কাজ করছি।  শিলই ইউনিয়নে এ পর্যন্ত ১২৫০ টি পরিবারে আমরা সরকারি জি আর বরাদ্দকৃত চাল আমরা পৌঁছে দিয়েছি।  শিশুদের জন্য গুড়াদুধ, সুজি, বিস্কুট দেয়া হয়েছে ৬০ টি পরিবারে।  তাছাড়া মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ২৫০০ টাকা ইতিমধ্যেই পৌঁছাতে শুরু করেছে।  আমার শিলই ইউনিয়নে ৮০০ টি পরিবারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এই ঈদ উপহার পর্যায়ক্রমে পৌঁছে যাবে। এই শিলই ইউনিয়নে ইনশাল্লাহ কেউ না খেয়ে মরবে না।