ফকিরহাটে সাধারণ জ্বরের রোগীকে দেখতে অনিহা অনেক ডাক্তারের

29

ফকিরহাট থানা প্রতিনিধি।।

বাগেরহাট জেলার ফকিরহাট উপজেলায় সারাদেশের ন্যায় করোনা ভাইরাস সংক্রমণের আতঙ্কের উপজেলা সদরসহ প্রত্যন্ত অঞ্চলের সাধারণ জ্বর সর্দি ও কাশি রোগী দেখছেনা ডাক্তার, এই রোগী দেখতে বা চিকিৎসা সেবা দিতে অনিহা প্রকাশ করছেন। অনেক রোগীর পরিবারের অভিযোগ উঠেছে, খাদিজা, রহিমা, রুবেল, ফেরদাউস সহ অনেকে জানিয়েছেন, ফকিরহাটে বিভিন্ন বাজারের ডাক্তাররা সাধারণ একটু জ্বর সর্দি ও কাশি হলে ডাক্তারের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বলেন, এই ডাক্তারদের চেম্বারে গেলে দূরে দূরে থেকে প্রেসক্রিপশন করে দিচ্ছে আর ফি টাও নিতে ভুল করছে না। অনেক সময় এইসব ডাক্তাররা বলছেন, এখানে এসব রোগীর চিকিৎসা হবে না আর আমি ওই রোগী গুলোকে দেখতে বা চিকিৎসা দিতে পারব না। তখন নিরুপায় হয়ে বেতাগা বাজারে সুপ্রভাত চক্রবর্তী অরূপের শিব ডাক্তারের নিকট গেলে অতি সামান্য কয়েক টাকার ঔষধে আমরা ভালো হয়ে যাচ্ছি। এ বিষয়ে কথা হয় ফকিরহাট উপজেলা হাসপাতালের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বলেন, যদি কোনো ডাক্তার রোগীকে সেবা না দেয় এটা খুবই দুঃখজনক।তিনি আরো বলেন, বর্তমানে অনলাইনে সেবা প্রদান করা হচ্ছে তারপরও যে রোগী হচ্ছে তার পক্ষ থেকে আমাদের কাছে এসে সঠিক ও সত্য বিষয়টি বললে, আমরা সেই রোগী তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিচ্ছি। এসব রোগীর অভিযোগের বিষয়ে ডাক্তারের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বলেন, আমাদের সঠিক কোনো টেস্ট নেই যে কারণে অনেক রোগীকে হাসপাতালে যাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকি। তাছাড়া মাঝেমধ্যে নিজের শরীরটা ভালো থাকে না ওইসব ডাক্তাররা বলেন আমাদের তো অফিস আছে অফিসে কাজ শেষে যতটুকু সময় পাই তার ভিতর মাঝেমধ্যে নিজের চেম্বারে বসে এলাকার রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছি। প্রেসক্রিপশনের ফি’ র বিষয় জানতে চাইলে তারা এড়িয়ে যান।