সাতক্ষীরার তলুইগাছা বিওপিতে মানব পাচার ও করোনা প্রতিরোধে কঠোর অবস্থানে

13

সাতক্ষীরা থেকে বদরুজ্জামান খোকা

করোনা ও মানব পাচার প্রতিরোধ করার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে তলুইগাছা বিওপি। দেশে বর্তমানে করোনা আতঙ্কে জর্জরিত। সীমান্ত দিয়ে যাতে কোন প্রকার অবৈধ লোকজন বাংলাদেশের প্রবেশ করতে না পারে সেজন্য বি জি বি তাদের কর্মতৎপরতা বাড়িয়ে দিয়ে়েছ। বিজিবি সদস্যরা রাত-দিন ঘুম হারাম করে দেশের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। সীমান্ত দিয়ে কোন প্রকার মাদকসহ অবৈধ জিনিস যাতে প্রবেশ করতে না পারে সেজন্য এলাকাবাসীর সহযোগিতায় কামনা করেছেন বিওপি কমান্ডার আব্দুস সবুর। তাছাড়া লেন্স নায়ক সরোয়ার হোসেন এর নেতৃত্বে টহল অব্যাহত আছে। বিজিবি টহল জোরদার করার ফলে কালো বাজারিরা আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে। এই প্রসঙ্গে ক্যাম্প কমান্ডার আব্দুস সবুর এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন মানব ও অবৈধ মাদকের ব্যাপারে বিজিবি জিরো টলারেন্স আছে। যে যতই মতাধর হোক না কেন বিজিবি কাউকে ছাড় দিতে নারাজ। বিজিবি কখনো অন্যায়ের কাছে মাথা নত করেনা,এবং ভবিষ্যতে করবেনা। বিজিবি কোন প্রকার ভুলের কারণে দেশে কোনো করোনা রোগী বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারবেনা। তাছাড়া রাস্তা মানুষেরা অবাধ চলাচলের উপর কঠোর অবস্থানে আছে বিজিবি। কোন প্রকার লোকসমাগম থেকে সর্বদা মানুষকে বিরত থাকার আহ্বান জানান বিজিবি সদস্যরা । সর্বদা এলাকায় জনগণকে সচেতন করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। এবং এলাকার জনগণকে যথাযথ ভাবে বিজিবির কথাকে প্রাধান্য দিয়ে। মানুষ নিরাপদে ঘরে থাকলে করোনার মত মহামারী থেকে রা পাওয়া সম্ভব হবে। সীমান্ত এলাকায় মানব পাচারের সাথে যারা জড়িত তাদেরকে বিজিবি বেপরোয়া হয়ে খুজছে। তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে। বিজিবি আরো বলেন করোনা ভাইরাসের জন্য মানুষকে ঘরে থাকতে হবে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী গনতন্তের মানষ কন্য জননেত্রী শেখ হাসিনা খেটে খাওয়া মানুষের ঘরে-ঘরে খাদ্য পৌঁছে দেওয়ার অঙ্গিকার করেছেন। এ বিষয়ে ৩৩ বিজিবির সেক্টর কমান্ডার গোলাম মহিউদ্দিন এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন বিজিবি সর্বদা দেশের সীমান্তের অতন্ত্র প্রহরী হিসেবে কাজ করছে। তিনি আরও বলেন ভারত বা অন্য কোন দেশের বিনা পাসপোর্টে কোন লোক বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারবে না। এ ব্যাপারে আমাদের সাতীরার প্রতিটা বিওপি কে নির্দেশ দেওয়া আছে।