সাতক্ষীরায় করোনা সন্দেহে একটি পরিবার হোম কোয়ারান্টিনে

13

বদরুজ্জামান খোকা (জেলা প্রতিনিধি) সাতক্ষীরা।।

সাতক্ষীরা সদর উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা গুলো করোনা ভাইরাসে ব্যাপক ঝুঁকিতে আছে। বিশেষ করে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে মানুষের যাতায়াত বন্ধ হয়ে যাওয়াই অধিক মুনাফা লাভের আশায় এক ধরনের অসাধু ব্যবসায়ী অবৈধভাবে বিভিন্ন লোকজনদের ভারতে পার করে দিচ্ছে। কোন প্রকার নিয়ম নীতি তোয়াক্কা না করে বিজিবির চোখকে ফাঁকি দিয়ে বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে এসব লোকজন পারাপার হচ্ছে। এদিকে তলুইগাছা করোনা সন্ধেহে একটি পরিবারকে সনাত্ব করা হয়েছে। তলুইগাছা গ্রামের তজিবার রহমান সরদারের পুত্র ঢাকায় পড়াশোনা করত। ঢাকাতে অসুস্থ অনুভব করলে দ্রুত বাড়ি ফিরে আসেন। কিন্তু কাউকে কোন কিছু না জানিয়ে অবাধে চলাফেরা করছিল। গ্রামের সচেতন মানুষ তজিবর রহমানের পরিবারকে বাজার ঘাটে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। কিন্তু তারা কোন কথায় মানছিলনা। এর পরিপ্রেক্ষিতে সাতক্ষীরা সদর থানাকে জানানো হলে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান এবং তদন্ত ওসি আবুল কালাম আজাদ সঙ্গীয় ফোর্স সহ তজিবারের বাড়িতে এসে তার বাড়িতে লাল পতাকা উড়িয়ে দিয়ে যায়। থানা প্রশাসন ১৪ দিনের মধ্যে ঘর থেকে না বাহির হওয়ার নির্দেশ দেন। এদিকে তজিবার রহমানের পরিবারকে নিয়ে গ্রামের লোক চরম আতঙ্কে আছে। এছাড়া লোকজন ভারতে ও বাংলাদেশে যাতে প্রবেশ করতে না পারে সে ব্যাপারে এলাকাবাসী প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।