রামপালে করোনা আতংকে হঠাত্ করেই বেড়েছে নিত্যপণ্যের দাম

21

মোস্তাফা কামাল, রামপাল থানা প্রতিনিধি :

রামপালে করোনা ভাইরাস আতংকে বাজারে হঠাৎ করেই বেড়েগেছে নিত্যপণ্যের দাম। চাল ডাল তেল সহ শাকসবজি বিক্রয় হচ্ছে চড়া দামে। যদিও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে ,দেশে খাদ্য সহ প্রয়োজনীয় দ্রব্যের যথেষ্ঠ মজুদ আছে। করোনা ভাইরাসকে মহামারি হিসাবে ঘোষনা দেয়ার পরপরই সাধারণ মানুষের মধ্যে একটা আতংক কাজ করছে। প্রত্যন্ত অঞ্চলেও অজানা আশংকায় নিত্যপণ্যের বাজারে হঠাৎ করেই ক্রেতারা ভীড় জমাচ্ছে।
সরেজমিনে রামপালের বেশ কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, নিত্যপণ্যের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে মূল্য তালিকা ঝুলানোর নির্দেশ থাকলেও অধিকাংশ দোকানে নেই মূল্য তালিকা। চালের দাম বস্তা প্রতি বেড়েছে ২০০ থেকে ৩০০ টাকা। এছাড়া প্রতি লিটার তেলে খুচরা ব্যাবসায়ীরা দাম বাড়িয়েছে ৪/৫ টাকা। বেড়েছে শাকসবজির দাম। প্রতি কেজি পেয়াজে বেড়েছে ২০/২৫ টাকা। খুচরা বিক্রেতাদের অভিযোগ, মূলত খুলনার বড়বাজার থেকে তারা এসব নিত্যপণ্য পাইকারী ক্রয় করে এনে খোলাবাজারে বিক্রয় করে থাকেন। যোগানের তুলনায় পন্যের চাহিদা বেড়েছে এমন অজুহাতে পাইকারী ব্যাবসায়ীরা দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। বেশ কয়েকজন ক্রেতার সাথে কথা বললে তারা অভিযোগ করে বলেন,যে পন্যের দাম দুইদিন আগেও কম ছিলো অসাধূ ব্যাবসায়ীরা তা রাতারাতি বাড়িয়ে দিয়েছে। এ ব্যাপারে প্রশাসনকে ব্যাবস্থা নেয়ার অনুরোধ করেছেন তারা।
রামপাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তুষার কুমার পাল জানান,কোনো ব্যাবসায়ী যাতে বেশী দামে নিত্যপণ্য বিক্রয় না করতে পারে আমরা সে ব্যাপারে বাজার নিয়মিত মনিটরিং এ রেখেছি। দাম বেশী নেয়ার কোনো সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পাওয়া গেলে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে তাৎক্ষনিক ব্যাবস্থা নেয়া হবে।