সৎভাবে পরিশ্রম করলে সফলতা অর্জন করা সম্ভব : বিআরটিসি চেয়ারম্যান এহছানে এলাহী

141

আবু দাউদ ইমরান-ডেক্স রিপোর্ট
সত্যনিষ্ঠ আশার ঔদার্য এবং মহৎ সংকল্পের দূর্জয়তা নিয়ে এগিয়ে গেলে যে কোন উদ্যেশে সাধন ও সিদ্ধিলাভ কখনও কঠিন হয়না। এই মহা সত্যের বাস্তব দৃষ্টান্ত প্রজাতন্ত্রের একজন নিবেদিত কর্মকর্তা দেশ বরেণ্য কর্মী বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মো. এহছানে এলাহী। কর্মেই যার জীবনের ধর্ম । দেশ জাতির বৃহত্তর কল্যাণে অগ্রদুত হয়ে কাজ করে চলেছেন এই মানুষটি।
গত ১৯ ফেব্রুয়ারী বেলা ১২টায় খুলনার শিরোমনি বিআরটিসি বাস ডিপো ও প্রশিক্ষন কেন্দ্র পরিদর্শন কালে সকলের উদ্যেশ্যে বলেন, সৎভাবে পরিশ্রম করলে সফলতা অর্জন করা সম্ভব। বিশেষ করে বিআরটিসিতে যারা কর্মরত আছে তাদের উদ্যেশে জ্ঞান ভিত্তিক আলোচনা করেন অতিরিক্ত সচিব ও চেয়ারম্যান বিআরটিসি এহছানে এলাহী। তিনি তাঁর আলোচনায় বলেন , নিজের দায়িত্ব শতভাগ পালন করলে বিআরটিসি অবশ্যই একটি লাভজনক প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃতি পাবে। তাই ভাগ্যের পরিবর্তন আনতে হলে সৎভাবে জীবন যাপন করতে হবে। নিয়ম শৃংখলা ও সমন্বয়ের মধ্যে আমাদের চলতে হবে। তিনি বলেন, মাত্র ৫ মাস বিআরটিসি’র চেয়ারম্যান হিসেবে যোগদান করেছি। এই অল্প সময়ের মধ্যে সারা দেশে বিআরটিসি বাস ডিপো ও প্রশিক্ষন কেন্দ্রগুলো সম্পর্কে খোঁজ খবর নিতে হচ্ছে। তাই আমার একার পক্ষে উন্নয়ন করা সম্ভব নয়। তাই আমি আপনাদের সকলের সহযোগিতা চাই। চেয়ারম্যান এলাহী আরো বলেন, আমি আশার পর বিআরটিসিতে একটি পরিবর্তন এসেছে। বিশেষ করে বকেয়া বেতন-ভাতার বোঝা ছিল। তা আমি পর্যায়ক্রমে পরিশোধ করছি। আগামী জুন মাসের মধ্যে সকল বকেয়া বেতন ভাতা পরিশোধ করব।
উল্লেখ্য, চেয়ারম্যান এহছানে এলাহীকে খুলনা বিএরটিসি বাস ডিপোর পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা প্রদান করা হয়। ফিতা কেটে গাড়ি সার্ভিসিং র‌্যাম্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করার পর বিআরটিসি’র অভ্যান্তরে দুটি ফলের চারা রোপন করেন বিআরটিসি’র চেয়ারম্যান। এরপর তিনি যোহরের নামাজ আদায় শেষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেন। নতুন করে অফিস বিল্ডিং , আবাসিক সুবিধা, স্থায়ী জনবল নিয়োগ, শ্রমিক কর্মচারিদের রাজস্বখাতে অর্ন্তভুক্তি করা সহ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের উপর দাবি পেশ করা হয়। নিয়ম অনুযায়ি দাবি সমূহগুলো পূরন করার আপ্রাণ চেষ্টা করবেন সদ্য যোগদানকৃত এ চেয়ারম্যান। তাই কাজের মান তড়ান্বিত করতে হবে। ড্রাইভিং প্রশিক্ষানার্থীদের বলেন , বেকারত্বের বিষ্ফোরন থেকে মুক্তি পেতে হলে এ প্রশিক্ষনকে কাজে লাগাতে হবে । আন্তরিক মনোভাব নিয়ে আপনাদের প্রত্যেকের দায়িত্বপালন করবেন। মনে রাখবেন কাজ ছাড়া কোন উপাায় নেই। অলসতা দূর করবেন। বাংলাদেশ এখন অর্থনৈতিক অবকাঠাম উন্নয়ন অনেকটা এগিয়ে চলছে। জনগনকে ভাল সেবা দিতে হবে। যাত্রীদের সাথে মার্জিত ব্যবহার করতে হবে। হিংসা বিদ্বেষ পরিহার করে চলতে হবে। আমাদের ঐক্যর সাথে চলতে হবে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ বির্নিমানে সবাইকে সঠিকভাবে এগিয়ে আসতে হবে। বিআরটিসি’র চেয়ারম্যানের পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন শিরোমনি বাস ডিপোর ম্যানেজার মো. নায়েব আলী, জুয়েল সিকদার, রাজু আহমেদ প্রমুখ।