অভয়নগরের শুভরাড়ায় ১৪৪ ধারা ভেঙ্গে জমি দখলের অভিযোগ, সংঘর্ষের আশংকা

138

মেহেদী হাসান ইরান, স্টাফ রিপোর্টার
অভয়নগর উপজেলার ৭নং শুভরাড়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের বাশুয়াড়ী গ্রামে একই জমিতে উভয়পক্ষের আদালতের নিষেধাজ্ঞা ১৪৪ ধারা জারি থাকার পরও আদালত কে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে জোর করে জমি দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

রোববার ঘটনাস্থলে সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় যে ৮০ নং বাশুয়াড়ী মৌজার ১৩৬৮ নং খতিয়ানে ২২১২ দাগের ৪০ শতকে জমির মধ্যে ৬ শতক জমি উপর দু’পক্ষের দুটি ১৪৪ ধারা জারি থাকার পরও রীতিমত জমি দখল করে ঘর তৈরীর কাজ চলছে, নিরব রয়েছে প্রশাসন। মামলা সূত্রে ও উপস্থিতি জন সাধারণ মধ্য থেকে জানা গেল গত ০১/০১/২০ ইং তারিখে সংঘর্ষ এড়াতে রোস্তম ফারাজী বাদী হয়ে বিজ্ঞ অতিরিক্ত নির্বাহী ম্যাজিঃ আদালত যশোরে একটি মামলা দায়ের করে। যার নং পি ০২/২০, অপর দিকে প্রতিপক্ষ রবিউল ফারাজী বাদী হয়ে ০৬/০১/২০ তারিখে একই জমিতে আরো একটি মামলা করে যার নং পি ১৮/২০।
এছাড়াও আদালতের নিধেষজ্ঞা থাকার পরেও অভয়নগর থানা ও স্থানীয় ক্যাম্পম্পে রয়েছে একাধিক অভিযোগ। আরো জানা যায় অভয়নগর থানা পুলিশ উভয় পক্ষকে আদালতের আদেশ জানিয়ে নোটিশ জারি করেছে। এ বিষয়ে এক ঘর নির্মাণ কারী উক্ত নালিশি জমির ক্রেতা রবিউল ফারাজী জানালেন টাকা দিয়ে জমি কিনেছি আর থানার ওসি সাহেব কে জানিয়ে ঘর বেধেছি। অপর পক্ষের মামলার বাদী রোস্তম ফারাজী জানালেন রবিউল, রফিকুল, শাহিন ও সিরাজ এদের নেতৃত্বে উক্ত নালিশী জমি দখল করার চেষ্টা চলছে। তিনি আরও জানান আদালতে নিষেধজ্ঞা থাকার পরও থানার দারোগা কি করে ঘর নির্মাণের পরামর্শ দেয়। উপস্থিত জনতার মধ্য থেকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন মুরব্বি জানালেন উভয় পক্ষ গ্রামের নিরিহ ও কম শিক্ষিত হওয়াতে ৩য় পক্ষের কথা শুনে সংঘাতে লিপ্ত হচ্ছে। এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সাথে কথা বলে জানা গেলো প্রশাসন যদি দ্রুত উভয় পক্ষের সংকট নিরাশনে ভূমিকা না রাখে তবে বড় ধরণের ক্ষতির সম্ভাবান দেখা দিতে পারে।