ভোটার কম উপস্থিতির জন্য দায়ী বিএনপি : হাছান মাহমুদ

138

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি কম হওয়ার জন্য বিএনপিকে দায়ী করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, বিএনপি শুরু থেকে নেতিবাচক প্রচারণা করেছে। শুরু থেকে তারা ইভিএম নিয়ে নেতিবাচক প্রচারণা চালিয়েছে। এজন্য ৮ থেকে ১০ শতাংশ ভোটার উপস্থিতি কম হয়েছে। তাছাড়া বিএনপি প্রথম থেকে বলে আসছে, তারা নির্বাচনকে আন্দোলনের অংশ হিসেবে নিয়েছে। জনগণের মধ্যে ধারণা জন্মেছে বিএনপি জয়লাভের জন্য নির্বাচন করছে না, নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হচ্ছে না। সে কারণে অনেক ভোটার ভোট দিতে উৎসাহ হারিয়ে ফেলেছে, ভোটার উপস্থিতি কম হয়েছে।

আজ সচিবালয়ে ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ে তিনি এসব কথা বলেন। ভোটার উপস্থিত কম হওয়ার পেছনে বেশ কয়েকটি কারণের মধ্যে টানা তিনদিন ছুটির বিষয়টিও উল্লেখ করেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, সে কারণে ঢাকার অনেক ভোটার গ্রামে চলে গেছে। ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে অত্যন্ত ভালো নির্বাচন হয়েছে বলে মন্তব্য করে তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, সমস্ত বিচারে গতকালকে ঢাকা শহরের ইতিহাসে অত্যন্ত ভালো নির্বাচন হয়েছে। এজন্য সবাই প্রশংসার দাবি রাখে। এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, আমি দেখেছি কয়েকটি কাগজে লিখেছে যে গোপন কক্ষে উঁকি দেওয়া হয়েছে। কে কোথাও উঁকি দিল সেটি বড় বিষয় নয় বরং শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতবড় একটি নির্বাচন, প্রায় আড়াই হাজার ভোটকেন্দ্র, ১৩ হাজারের বেশি বুথ। এখানে কয়েকটি গোপন কক্ষে কে উঁকি দিয়েছে এটি বড় বিষয়, বড় বিষয় হচ্ছে এতবড় একটি কর্মযজ্ঞ এত ভোটার, কোনো গন্ডগোল হয়নি, কোনো মারপিটের ঘটনা ঘটেনি, কেন্দ্র দখলের ঘটনা ঘটেনি।

যুক্তরাষ্ট্রের উদাহারণ টেনে তথ্যমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশে যারা ভোট দিতে যোগ্য তাদের ৯৯ দশমিক ৮ শতাংশ ভোটার হয় বা তার আরো বেশি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যারা ভোট দেওয়ার যোগ্য তাদের মধ্যে থেকে ৬০ শতাংশ ভোটার হয় আর সেই ৬০ শতাংশের মধ্যে থেকে ৪০-৫০ শতাংশ ভোট দিতে পারে। সে হিসাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ভোটদানে যোগ্য যে ভোটার, তাদের তুলনায় গতকাল যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে সেখানে ভোটার উপস্থিতি অনেক ভালো ছিল বলে মন্তব্য করেন তিনি।

সৌজন্যে : মানবজমিন অনলাইন