খুলনায় এসএসসি পরীক্ষায় কেন্দ্র বেড়েছে , তুলনামূলক ভাবে কমছে পরীক্ষার্থী

131
মোঃ আল আমিন খান,ব্যুরো চিফ খুলনা 
যশোর শিক্ষা বোর্ডের অধিনে খুলনায় এ বছর এসএসসি ও সমমনা পরীক্ষায় কেন্দ্র বেড়েছে ১টি ও পরীক্ষার্থী কমছে ২৩৮৫জন। এ বছর জেলায় ৮৭টি কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী রয়েছে ৩০হাজার ৬শ’৭জন। এর মধ্যে এসএসসি ২৪হাজার ৯৫২,দাখিল ৩হাজার৩৯১ ও ভোকেশনাল ২হাজার ২৬২জন। গত বছর ২০১৯ সালে ছিল এসএসসি ছিল ২৭হাজার ৬৮৪, দাখিল ছিল ৩হাজার ১৩৯ ও ভোকেশনাল ছিল ২হাজার ১৪৯জন। এ বছর কয়রা চান্নিরচক এল.সি কলেজিয়েট স্কুলে নতুন কেন্দ্রের অনুমোদন প্রদান করা হয়েছে। আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে এই পাবলিক পরীক্ষা। সূত্রে জানা যায়, সুষ্ঠু সুন্দর ও নকলমুক্ত পরিবেশে এ বছর এসএসসি ও সমমনা পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। খুলনায় কেন্দ্রগুলোর মধ্যে নগরীরত এসএসসি রয়েছে ২৩টি, দাখিল রয়েছে ২টি ও দশম ভোকেশনাল রয়েছে ৫টি। জেলায় এসএসসি পরীক্ষার কেন্দ্র রয়েছে ৩৩টি, দাখিল কেন্দ্র ১৩টি এবং ভোকেশনাল রয়েছে ১১টি। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে জেলায় ৪০১টি,মাদরাসা ১১৫টি ও ভোকেশনাল ৩৪টি। যশোর শিক্ষা বোর্ডের অধিনে খুলনা জিলা স্কুল কেন্দ্রে ৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৯৪০জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। সরকারি দৌলতপুর মুহসিন মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৪০৪জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। খুলনা পাবলিক কলেজ কেন্দ্রে ২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৩৬৪জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। বঙ্গবাসী মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৪৭৯জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। নৌবাহিনী মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৩৪০জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। গভ: ল্যাবরেটরী হাই স্কুল কেন্দ্রে ৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২১৯জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। খুলনা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৩৫২জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। খুলনা সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রে ৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২৭৭জন পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। হাজী ফয়েজ উদ্দিন উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৪৪১জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। সরকারি করোনেশন মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৫৬৯জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৭৭৮জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। ফাতিমা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৪০৮জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। বি.কে ইউনিয়ন ইনস্টিটিউট কেন্দ্রে ৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠনের ২২১জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। খুলনা কলেজিয়েট স্কুল কেন্দ্র ৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৩৮৪জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। রোটারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কেন্দ্রে ৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২২৬ জন পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। পল্লীমঙ্গল মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৩২৪জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। সরকারি ইকবাল নগর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১৯১ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। ইসলামাবাদ কলেজিয়েট স্কুল কেন্দ্রে ৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২৬২ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। খালিশপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্র ৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২০৮ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। আফিল উদ্দিন মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র ৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৪২৩ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। দৌলতপুর মুহসীন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্র ৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৩০৮ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। আর,আর,এফ সেকেন্ডারী স্কুল কেন্দ্রে ২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৯৬ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। খানাবাড়ী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২১৮ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে বলে জানা যায়। গত বছরের চেয়ে এবছর পরীক্ষার্থী কম হওয়ার বিষয় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( শিক্ষা আইসিটি) গোলাম মাঈনউদ্দিন হাসান বলেন, পরীক্ষা একটা স্বাভাবিক প্রক্রিয়া কখনো কমবে আবার কখনো বাড়বে। ইচ্ছা করলে কেউ কমাতে বা বাড়তে পারেনা। সুষ্ট ভাবে পরিক্ষা সম্পন্ন করার লক্ষ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।