হাসপাতালের সংবাদ প্রকাশে অনুমতি লাগবে

104

এখন থেকে হাসপাতালের সংবাদ প্রকাশে সংশ্লিষ্টদের অনুমতি লাগবে। কর্তৃপক্ষের সম্মতি ছাড়া সরকারি হাসপাতালের কোনো তথ্য বা সংবাদ প্রকাশ করা যাবে না। একই সঙ্গে জামানতের মাধ্যমে দেয়া হবে দর্শনার্থী পাস। স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ থেকে সরকারি সব স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে পাঠানো এক নির্দেশনাপত্র থেকে এসব তথ্য জানা যায়। ‘সরকারি হাসপাতালের দর্শনার্থী ব্যবস্থাপনা’ নামে ওই নির্দেশনাপত্রে বলা হয়েছে, ‘গবেষণা, জরিপ অন্য কোনো তথ্য বা সংবাদ সংগ্রহের জন্য তথ্য সংগ্রহকারী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে অবহিত করবেন। সংগৃহীত তথ্য বা সংবাদের বস্তুনিষ্ঠতার বিষয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে অবহিত করবেন। বিনা অনুমতিতে হাসপাতালের ভেতরে রোগী বা স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রমের কোনো স্থির চিত্র বা ভিডিও চিত্র ধারণ করতে পারবেন না। সংগৃহীত তথ্য প্রকাশের আগেই বস্তুনিষ্ঠতা বিষয়ে কর্তৃপক্ষের সম্মতি গ্রহণ করতে হবে।’এতে বলা হয়,‘প্রত্যেক হাসপাতালে দর্শনার্থী পাস চালু করতে হবে এবং প্রতিটি পাসের জন্য নিরাপত্তা জামানত চালু করা যেতে পারে। রোগীর অসুস্থতা বিবেচনায় একজন রোগীকে সহায়তার জন্য সর্বোচ্চ দুজন দর্শনার্থীকে পাস দেয়া যেতে পারে। হাসপাতাল ত্যাগের আগেই পাস জমা দিয়ে নিরাপত্তা জামানত ফেরত নিতে পারবেন। এই নির্দেশনায় দর্শনার্থী নিয়েও আরো অনেক নিয়ম তৈরী করা হয়েছে। নির্দেশনাটি স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক,সব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক, সব বিশেষায়িত হাসপাতালের পরিচালক, হাসপাতাল ও ক্লিনিকের পরিচালক, সব বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য), সব সিভিল সার্জন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাদের পাঠানো হয়েছে।হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সম্মতি ছাড়া কোনো তথ্য প্রকাশ করা যাবে না- এমন নির্দেশনা দেয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আসাদুল ইসলাম গণমাদ্যমকে বলেন,‘যে কোনো তথ্য সংগ্রহ করা যাবে। তথ্য সংগ্রহে বাধা নেই। এটা তো সাংবাদিকতার নীতি যে, যার সম্পর্কে তথ্য পেয়েছি, সে বিষয়ে তার সঙ্গে কথা বলে ক্রস চেক করে নিতে হয়, তার বক্তব্য নিতে হয়।সেটাই আমরা বলেছি।’বলা হচ্ছে ‘সম্মতি ছাড়া তথ্য প্রকাশ করা যাবে না’, এ সময় সচিব বলেন, ‘না, ঠিক সম্মতি নয়। যাচাই বা মতামত নেয়া হবে, এমন বিষয়। সম্মতি শব্দটা হয়তো ঠিক হয়নি।’