ভোটাধিকার কেড়ে নেয়ার যন্ত্র ইভিএম : আমির খসরু

81

ডেক্স রিপোর্ট : চিরতরে বাংলাদেশের মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নেয়ার একটি যন্ত্র ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) এমন মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী। শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে জাতীয়তাবাদী কর্মজীবী দলের উদ্যোগে ‘এক-এগারোর প্রেক্ষাপট আজকের বাংলাদেশ রচনা’ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।
আমির খসরু বলেন, ইভিএম হচ্ছে বাংলাদেশের মানুষের কাছ থেকে ভোট কেড়ে নেয়ার পার্মানেন্টলি একটি প্রকল্প। চিরতরে বাংলাদেশের মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নেয়ার একটি যন্ত্র হচ্ছে ইভিএম। এই ইভিএম হচ্ছে স্বয়ংক্রিয়ভাবে নীরবে নিঃশব্দে ভোট চুরির একটি প্রকল্প ছাড়া আর কিছুই নয়।
এসময় তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এই ইভিএম যদি আপনারা বন্ধ করতে না পারেন তাহলে আপনারা ভোটাধিকার চিরতরে হারাতে বাধ্য হবেন। সামনে যে সিটি করপোরেশন নির্বাচন হবে সেটি নাকি হবে আবার ইভিএমের মাধ্যমে। মধ্যরাতের নির্বাচনে ব্যালট চুরির মাধ্যমে যে নির্বাচন হয়েছে সেটি কিন্তু বিশ্ববাসীর কাছে এবং বাংলাদেশের মানুষের কাছে দিনে-দুপুরে ভোট ডাকাতির নির্বাচন হিসেবে চিহ্নিত হয়ে রয়েছে। সুতরাং এখন আর ব্যালট বাক্স ভর্তি করে কারচুপি করে নির্বাচন করার সুযোগ নাই।

সেটি এখন তাদের কাছে অত্যন্ত কঠিন হয়ে গেছে। কারণ এটা বিশ্ববাসী এবং বাংলাদেশের মানুষের কাছে ভোট কারচুপির নির্বাচন হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। সেই কারণে এটা এখন তাদের পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না।
তিনি বলেন, আগে আলোচনা হতো নির্বাচনে কে জিতবে। এখন আর সেটি আলোচনা হয় না।

এখন আলোচনা হয় এই সিটটি ওরা দেবে? না ওরা নিয়ে নিবে। ঢাকা দুই সিটির নির্বাচনে ওরা কি দুটোই নিয়ে নেবে নাকি একটি দিয়ে দিবে এইগুলো এখন জনগণ আলোচনা করে। আর এটার জন্য ইভিএম হচ্ছে তাদের মোক্ষম একটি অস্ত্র।
আয়োজক সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সালাউদ্দিন খান পিপিএমের সভাপতিত্বে এবং সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আলতাফ হোসেন সরদারের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান এড. জয়নুল আবদিন, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মোহাম্মাদ রহমাতুল্লাহ, সাবেক কমিশনার অধ্যাপিকা ফাতেমা সালাম, কৃষক দলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য লায়ন মিয়া মোহাম্মদ আনোয়ার।