নুরের বিরুদ্ধে ডিজিটাল আইনে মামলা

105

 ভিপি নুরুল হক নুরের বিরুদ্ধে ধর্মীয় উস্কানি ও অপপ্রচারের অভিযোগ এনে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়েছে। গতকাল ধানমন্ডি থানায় ঢাবি ছাত্রলীগের জগন্নাথ হল শাখার প্রচার সম্পাদক অর্নব বাদী হয়ে মামলাটি করেছেন। মামলায় বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদ খানকেও আসামি করা হয়েছে। ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনের ২৫, ২৬, ২৯ ও ৩১ ধারায় তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে। এজাহারে বাদী উল্লেখ করেছেন ২৩ শে ডিসেম্বর বিবাদীরা একটি ফেসবুক পোষ্ট দেন। এতে অভিযোগ করা হয়, নুর ও রাশেদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ধর্মীয় উস্কানিমূলক তথ্য প্রচার করেছেন। তারা উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে বিভিন্ন ধরনের মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য প্রচার করেছেন। উক্ত ফেসবুক লাইভে মিথ্যা গুজবের কারণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ সারা দেশে ছাত্র/ছাত্রী এবং সাধারণ জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়।  যার দরুণ দেশের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ার উপক্রম হয়।

এই পোষ্টগুলো ঢাবির ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস সম্পর্কে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করাসহ ঢাবি ছাত্রলীগের জন্য অসম্মানজনক ও মানহানিকর বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়।

গত ২২শে ডিসেম্বর দুপুরে ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুর ও তার অনুসারীদের ওপর হামলা চালায় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের একাংশ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। ওই হামলায় নুরসহ অন্তত ৩৪ জন আহত হন। এ ঘটনায় আট জনের নাম উল্লেখ করে পুলিশ একটি মামলা করে। পরে ছাত্রলীগ ও ডাকসুর ৩৭ নেতাকর্মীর নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৪০-৫০ জনের বিরুদ্ধে শাহবাগ থানায় নুরের পক্ষে অভিযোগ দাখিল করা হয়। পরে চুরি, হত্যা চেষ্টার অভিযোগ এনে নুরসহ ২৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের কর্মী ডি এম সাব্বির হোসেন। এদিকে ডাকসুতে হামলার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, ছাত্র সংগঠন ও ডাকসুর সাবেক নেতারা। এ ঘটনার প্রেক্ষিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আত্মপ্রকাশ করেছে সন্ত্রাস বিরোধী ছাত্র ঐক্য।

সৌজন্যে : মানবজমিন।।