ভোলার-নুরাবাদ স্বতন্ত্রপ্রার্থীর জনসংযোগে হামলা, আহত ২৫

128
চরফ্যাশন উপজেলার নুরাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে নৌকা মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান ও আনারস মার্কার প্রার্থী আনোয়ার হোসেনের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। দুই ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষে পুলিশসহ অন্তত ২৫ জন আহত হয়। এদের মধ্যে গুরুতর আহত ৪ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থকরা সতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয়‌ ভাঙচুর করে। ওই এলাকায় এখনও থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, গতকাল শুক্রবার সকাল ১১ টার দিকে নুরাবাদ বাজার এলাকায় সতন্ত্র প্রার্থী আনোয়ার হোসেনের সমর্থকরা গণসংযোগ করছিল। এসময় আওয়ামী লীগ প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমানের সমর্থকরা লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালালে ঘটনার সূত্রপাত ঘটে। খবর পেয়ে দু’পক্ষের সমর্থকরা লাঠিসোটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে বাজারের দুই পাশে অবস্থান নেয়। এসময় প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী দফায় দফায় ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশের ৩ কর্মকর্তাসহ অন্তত ২৫ জন আহত হয়। ঘটনায় পরপর নৌকা মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী সমর্থকরা নুরাবাদ বাজারের সতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয়‌ ভাঙচুর করে। এসময় ১টি এলইডি টিবি ১টি সাউন্ড মেশিন ও ৪টি মটর সাইকেলে কুপিয়ে ও রড দিয়ে ভাঙচুর করে।
দুলারহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান পাটওয়ারী জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেতে পুলিশ লাঠিচার্জ করে। এসময় পুলিশের তিন কর্মকর্তা ও দুই কনেস্টবল আহত হয়। বর্তমানে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে বলেও জানান তিনি। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
আগামী ৩০ ডিসেম্বর নুরাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
সৌজন্যে :Channel Bangladesh24