খালেদার জিয়ার জামিন শুনানি শুরু

117

কারাবন্দী বিএনপি চেয়ারপারসন  বেগম খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি শুরু হয়েছে। বিএসএমএমইউ’তে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার সর্বশেষ স্বাস্থ্য পরীক্ষার প্রতিবেদন আদালতে দাখিলের মাধ্যমে শুরু হয় শুনানি কার্যক্রম। আদালত প্রতিবেদনটি পর্যবেক্ষণ করছেন।

আজ সকাল ১০টার কিছু পরে আদালতে কার্যতালিকার ১২ নম্বরে থাকা খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি শুরু হয়।

এ সময় রেজিস্ট্রার জেনারেল আদালতে খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার প্রতিবেদন দাখিল করেন।

এর আগে, সকাল ৯টায় আপিল বিভাগে দিনের কার্যক্রম শুরু হয়। এদিন সকালে বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা আপিল বিভাগে প্রবেশ করতে গেলে বাধার মুখে পড়েন। প্রবেশ পথে দায়িত্বরত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা আইনজীবীদের জানান, আপিল বিভাগের তালিকাভুক্ত আইনজীবী যারা (মোট ৬১৩ জন), কেবল তারাই আদালতে প্রবেশ করতে পারবেন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর এ অবস্থানের কারণে বিএনপিপন্থি অনেক আইনজীবীই আদালতে প্রবেশ করতে পারেননি।

আদালতের কার্যক্রম শুরু হলে বিএনপিপন্থি তালিকাভুক্ত আইনজীবীদের যারা আদালতে প্রবেশ করেছিলেন, তারা শুরুতেই আইনজীবীদের প্রবেশে বাধা দেয়ার বিষয়ে প্রধান বিচারপতির দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। সিনিয়র আইনজীবী খন্দকার মাহমুদ হোসেন আদালতকে বলেন, আমাদের আইনজীবীরা আদালতে প্রবেশ করতে পারছেন না।

এ বিষয়টির সমাধান করা প্রয়োজন। আজ শত শত পুলিশ আদালত এলাকায় অবস্থান নিয়েছে। কিন্তু আইনজীবীরা আদালতে প্রবেশ করতে পারছেন না।

পরে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম আদালতকে বলেন, আমাদের দুই পক্ষের ৩০ জন করে আইনজীবীকে উপস্থিত থাকার সুযোগ দিন। পরে আপিল বিভাগ সিদ্ধান্ত দেন, বিএনপি ও রাষ্ট্রপক্ষের ৩০ জন করে আইনজীবী জামিন আবেদনের শুনানির সময় আদালতে উপস্থিত থাকতে পারবেন।

আদালত জানান, কার্যতালিকার ১২ নম্বর বিষয়টি (খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি) যখন আসবে, তখন পাঁচ মিনিট সময় দেওয়া হবে। এ সময়ের মধ্যে দুই পক্ষের ৩০ জন করে আইনজীবী উপস্থিত হতে পারবেন আদালতে।