যশোরের অভয়নগরে শ্বশুরকর্তৃক পুত্রবধূ লাঞ্ছিত

207
ওসমান গণি, ক্রাইম রিপোর্টার-যশোর।।
যশোর অভয়নগর উপজেলার ভৈরবনদের উত্তর-পূর্ব জনপদে ৭নং শুভরাড়া ইউনিয়নে শ্বশুরের কাছে পুত্রবধূ লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।
জানা যায় পারিবারিক জের ধরে রস্তোম সরদার (৬৭)ও তার স্ত্রী/ দুই পুত্র ও পুত্রবধূসহ  ফতেমাকে কঠিন ভাবে মারপিট করে। স্বামী নাজির সরদার দীর্ঘদিন মালয়েশিয়া থাকা অবস্থায় গত ৮/৯ বছর আগে নিজস্ব ভাবে জমি ক্রয়ের জন্য পিতাকে একলক্ষ বিশ হাজার টাকা দেয়। স্বামীর নির্দেশে উক্ত জমিটি চলতি-অর্থ বছরে রেজিস্ট্রি করে নেয় ফাতেমা। পরবর্তীতে উক্ত জমি (স্বামী না থাকায়) রস্তোম সরদার আত্মসাৎ করার চেষ্টা করলে, একপর্যায়ে ফাতেমাকে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখানোর চেষ্টা করে।ফাতেমা তার বৈধ সম্পত্তি অনুকূলে রাখতে চাইলে তাৎক্ষণিক ফাতেমা’র শ্বশুরের বন্টনকৃত বাড়িতে এসে রস্তোম সরদারসহ তার লাঠিবর্গ সাথে নিয়ে তারই নির্দেশে এলোপাতাড়ি ভাবে তাকে মারপিট করে। দুই নভেম্বর তাকে ফুলতলা উপজেলা সাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করা হয় । বর্তমানে এই একাকী বসবাসকৃত ফাতেমা ও তার কোলের শিশু বাচ্চাকে নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেও বলে জানা যায়।অবশেষে নিরুপায় হয়ে ফাতেমা স্থানীয় প্রশাসনের কাছে একটি অভিযোগ দায়ের করে।
কিন্তু, দুঃখজনক হলেও সত্য যে, উক্ত অভিযোগকৃত বিষয়টি নিয়ে ফাতেমা স্থানীয় প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠু কোন বিচার আজও পায়নি বলে জানায়। প্রত্যক্ষদর্শী মতে জানা যায়, অভিযোগকৃত বিষয়টি নিয়ে এস আই শাহ্ জলিল আসামীকে চাপ-দিলে  রস্তোম সরদার  ২৫০০ টাকা দিয়ে ক্যাম্প ইন্চার্জকে ম্যানেজ করে নেয়, উক্ত ঘটনায় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ধুরন্দর রস্তোম সরদার এ কথা শিকার করেন।বিষয়টি দ্রুত তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট অনুরোধ করা  হল।