কক্সবাজার ৫ সাংবাদিক হয়রানির শিকার

180

ডেক্স রিপোর্ট।

শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) কক্সবাজার চকরিয়া থানা পুলিশ ৫ সাংবাদিককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসে ।অত:পর ৩ ঘন্টা পর  ছেড়ে  দেয় বলে জানাযায়।

তথ্যমতে, ঢাকা  থেকে কক্সবাজার পর্যটন এলাকায় উন্নয়নের পথে বাংলাদেশ শীর্ষক প্রামাণ্য অনুষ্ঠানের জন্য তথ্য সংগ্রহ করতে  গেলে সাংবাদিক আরিফুর রহমান  সেতু, রনি মজুমদার, অমিয় বিশ্বাস , মাসুম মিয়া ও অহিদুল ইসলামকে চকরিয়ার  পৌরশহরে মডেল সরকারি প্রাইমারী স্কুল মাঠ থেকে এস আই আব্দুল বাতেন তাদের থানায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যায়।  এ সময় পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপ সাংবাদিকতার অভিযোগ তোলে। তবে ঘটনার ৩ ঘন্টা অতিবাহিত হলেও  কোন প্রমাণাদি আটককৃত সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে না পাওয়া তাদের  ছেড়ে দেয়।

মুঠোফোনে ভুক্তভোগী সাংবাদিক আরিফুর রহমান সেতু জানান, আমাদের বিরুদ্ধে  যে সকল অভিযোগের তীর ছুড়েছে তা যদি বিন্দু পরিমান সত্য হতো , তাহলে পুলিশ আমাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিত। চকরিয়া থানার ওসি সহ সংশ্লিষ্টরা আমাদের ছেড়ে দিত না। এতক্ষন মামলার জালে ঝুলতাম।

সাংবাদিকদের সাথে এ ধরনের হয়রানি। জিজ্ঞাসাবাদের নামে ঘন্টার পর ঘন্টা থানায় আটকে রাখা এক ধরনের হয়রানি বলে জানিয়েছেন বিভিন্ন সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করেছেন জাতীয় মফস্বল সাংবাদিক  এসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি ফ.ম লূৎফর কবির, দৈনিক ঢাকা রিপোর্ট নির্বাহী সম্পাদক মুশফিক সুভ, বিবিসি একাত্তর সম্পাদক হিরামন সাগর, দৈনিক মানবাধিকার প্রতিদিন এর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক খন্দকার আছিফুর রহমান, দৈনিক ফলাফল এর সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান,  যোগাযোগ প্রতিদিন এর সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন  (প্রমুখ)