যশোরের বসুন্দিয়ায় গলিত যুবকের লাশ উদ্ধার, আটক-২

170
ওসমান গনি ক্রাইম রিপোর্টার যশোরঃ
গতকাল যশোর সদর উপজেলার বসুন্দিয়া জঙ্গল বাঁধাল গ্রামে এক যুবকের গলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
দীর্ঘ অনুসন্ধানের ২৬দিন পর পল্লব দত্ত (১৮)-এর লাশ জঙ্গল বাঁধাল অপূর্বের নানা বাড়ির ঘরের মাটিচাপা অবস্থায় উদ্ধার করে বসুন্দিয়া ক্যাম্পের ইনচার্জ সনজিৎ মন্ডলের একটি টিম।
পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, বিকাশ দত্ত’র ছেলে পল্লব দত্ত (১৮) যশোর সরকারি সিটি কলেজে  পড়ুয়া একজন শিক্ষার্থী ছিলো। বেশ কিছু দিন ধরে ছেলেটি নিখোঁজ হয়। এরপর এলাকায় প্রচারিত মাইকে ঘোষণার পরেও ছেলেটির কোন খোঁজ মেলে নাই। তাঁর পিতা বিকাশ দত্ত দিশেহারা হয়ে ক্রান্তিকার অবস্থায় স্থানীয় প্রশাসনের কাছে একটি সাধারণ ডাইরি করে।
এই ডাইরির ভিত্তিতে ওই এলাকায় কঠিন ভাবে অভিযান চালায় স্থানীয় পুলিশ। এবং সেই সাথে  cintv24 প্রতিনিধিদের যৌথ তৎপরতার ফলে ২৭দিনের পর মিললো গলিত একটি লাশ।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, এই চাঞ্চল্যকর ঘটনার দুই-একদিন আগে বিকাশ দত্ত’র ছেলে পল্লব দত্ত বাড়ি থেকে বের হওয়ার সময় পল্লব ও তার বন্ধু মারুফ শেখ-কে মোটরসাইকেলে কলেজের যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হয়।
পথি-মধ্যে পল্লব ও তার বন্ধু বসুন্দিয়া মোড়ে নেমে যায়। এরপর থেকেই নিখোঁজ হয় পল্লব দত্ত।
এদিকে ডায়েরির সূত্র ধরে পুলিশ জঙ্গল বাঁধাল আজিজুর রহমানের ঘরের ভেতর থেকে মাটি চাপা গলিত লাশটি উদ্ধার করে, ওই সময়ে বাড়ি তল্লাশি চালিয়ে পল্লব দত্তের একটি ল্যাপটপসহ একটি মোবাইল উদ্ধার করে।
 এ সময় উপস্থিত ছিলেন ১৫নং বসুন্দিয়া ইউনিয়নের  চেয়ারম্যান রিয়াজুল ইসলাম খান রাসেল। পরবর্তীতে যশোর কোতোয়ালিতে লাশটি হস্তান্তর করা হয়। উক্ত ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে জঙ্গল বাঁধাল গ্রামের জামাল হোসেনের পুত্র, আলিফ আহমেদ অপূর্ব-(১৮) ও জগন্নাথপুর এলাকার ফারুক শেখের পুত্র মারুফ শেখ ঈশান (১৯)-কে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।
প্রত্যক্ষদর্শী-মতে জানা যায়, আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করায় অপূর্ব ও ঈশান একযোগে নৃশংস ভাবে খুন করে।
বিষয়টি দ্রত তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য রাষ্ট্রীয় ভাবে সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করে এলাকাবাসী।