খুলনা রূপসা ঘাট পারাপারে দূর্নীতির অভিযোগ

364
খুলনা ব্যুরো
খুলনার ব্যস্ততম রূপসা ঘাট  দিয়ে প্রতিদিন পারাপার হয় অর্ধলক্ষাধিক যাত্রী। কিন্তু ঘাটে ট্রলার মাঝিদের নিয়ম-নীতির কোনো বালাই নেই। নিয়ম-নীতি উপেক্ষা করে অধিকাংশ সময় ট্রলারে নেওয়া হয় অতিরিক্ত যাত্রী। রাতে অধিকাংশ ট্রলারে থাকেনা বাতি। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পার হতে হয় যাত্রীদের। যাত্রীদের অভিযোগ রাত একটু হলেই একদিকে ট্রলারে নেওয়া হয় অতিরিক্ত যাত্রী অপর দিকে পারানি আদায় করা হয় তিন টাকার স্থলে জনপ্রতি পাঁচ টাকা। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পূর্ব ও পশ্চিম রূপসা ইঞ্জিন চালিত মাঝি সংঘের কতিপয় কর্মকর্তার কারণে এ ঘাটে নানা অনিয়ম বাসা বেধেছে । বিশেষ করে মাঝি সংঘের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের তদারকি না থাকা ও খামখেয়ালীপনার কারণে ট্রলার মাঝিরা অনিয়মের সুযোগ পাচ্ছে। দিনের বেলা জনপ্রতি পারানি তিন টাকা করে আদায় করলেও অধিকাংশ সময় ট্রলারে নেওয়া হয় অতিরিক্ত যাত্রী। অভিযোগ ওঠেছে, রাত একটু বেশি হলেই যাত্রীদের কাছ থেকে পাঁচ টাকা করে পারানি আদায় করা হয়। এ নিয়ে অধিকাংশ সময় যাত্রীদের সাথে বাকবিতন্ডা হয়। স্থানীয় জনগন বলেন, নেতারা যদি কঠোর অবস্থানে থাকে তাহলে সাধারণ ট্রলার মাঝিরা এসব অনিয়ম করার সুযোগ পাবে না বলে নিরীহ মাঝিদের দাবি।