গোবিন্দপুর ইউনিয়নবাসী ৫ বছরের মধ্যে শহুরে নাগরিক সুবিধা পাবে : মহিউদ্দিন তালুকদার

232

বরিশাল থেকে জুয়েল ডি সানি এবং আরিফুর রহমান

বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জের একেবারে শেষ প্রান্তে মেঘনা নদীর কোলে অবস্থিত এই গোবিন্দপুর ইউনিয়ন। ২০১৬ সালের পুরো ইউনিয়ন মেঘনার ভাঙ্গনে বিলীন হয়ে যায়। তার পরবর্তীতে এক বছরের মাথায় আবার জেগে উঠে ইউনিয়নটি। বর্তমানে এই ইউনিয়নে রাস্তাঘাট থেকে শুরু করে কিছুই নেই। সব কিছু নতুন করে করতে হচ্ছে
। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি গোবিন্দপুর ইউ পি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন তালুকদার আমাদের cintv24 এর কাছে তুলে ধরেন বর্তমান হালচাল। তিনি cintv24 কে বলেন, সব কিছু বিলীন হয়ে যাওয়ায় নতুন করে মাটির কাজ করতে হচ্ছে যা সবাভাবিক বরাদ্দের দ্বারা সম্ভব না। তাছাড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে অনেক সামাজিক প্রতিষ্ঠানের কোন অস্তিত্ব নেই। যার ফলে ইউনিয়নের বহু পরিবার এখন নিঃস্ব। বরিশাল ৪ আসনের মাননীয় সংসদ পংকজ দেবনাথের তৎপরতায় ইউনিয়নে কিছু গুচ্ছ গ্রাম এবং আশ্রয়ণ প্রকল্পের কাজ চলমান রয়েছে। তাছাড়া পর্যাপ্ত পরিমানে বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, ভি জি ডি , ভি জি এফ সহ বিভিন্ন ত্রান দ্রুত পাওয়ায় এই এলাকার মানুষকে না খেয়ে মরতে হয়নি। এই ইউনিয়নের প্রেক্ষাপটে শহুরে নাগরিক সুবিধা পৌঁছানো কতটা চ্যালেঞ্জের জনতে চাইলে তিনি cintv24 কে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর একাদশ জাতীয় নির্বাচনের ইশতেহার ‘গ্রাম হবে শহর’ অবশ্যই এই ইউনিয়নে বাস্তবায়ন সম্ভব। এখানে নতুন করে পরিকল্পনার মাধ্যমে রাস্তা হচ্ছে, নতুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কাজ চলছে। শুধু মাত্র কমিউনিটি ক্লিনিকের ক্ষেত্রে আমরা পিছিয়ে আছি। বিদ্যুৎ এর জন্য ইতিমধ্যেই জমি অধিগ্রহন করা হয়েছে। সড়ক পথে যোগাযোগের জন্য লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার সাথে সংযোগ এর কাজ চলছে। আশা করি এইসকল কাজ সমাপ্ত হলেই আমার এই ইউনিয়নের সকলেই আগামী ৫ বছরের মধ্যেই শহুরে নাগরিক সেবা পাবে এই গ্রামে বসে এটা আমার বিশ্বাস। তবে মাননীয় সংসদ
ও প্রধানমন্ত্রীর নিকট আমাদের এলাকার জন্য বিশেষ দাবী সাধারন বরাদ্দের সাথে বিশেষ বরাদ্দ দিয়ে এই এলাকার স্বাস্থ্য সেবা যাতে জরুরী ভাবে ব্যবস্থা করা হয় এটাই আমাদের প্রত্যাশা।