খুলনার-আফিলগেট ১৫ বছরের কিশোরী গণধর্ষনের শিকার, ধর্ষকদের ফাঁসি চাই : মেয়ের বাবা

694

স্টাফ রিপোর্টার :

আফিলগেট শিল্পাঞ্চল এলাকায় আটরা বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এক ছাত্রী সোমবার রাত্রে বন্ধু কর্তৃক গণধর্ষণের স্বীকার হয়। ধর্ষণের স্বীকার ভুক্তভোগী মেয়েটির পিতা ও এলাকাবাসী জানায় বান্ধবীকে জিনিস পত্র কিনে দেওয়ার কথা বলে সরাদিন মটর সাইকেলে ঘুরিয়ে রাত্রে বন্ধুদের সাথে নিয়ে আফিলগেট সিটি গেটের চায়ের দোকানদার মিজানের নির্মানাধীন একতলা বাড়ীতে গণধর্ষণ করে। অভিযুক্তরা হলেন আটরা সিটিগেট কলাবাগানের বাসিন্দা রুস্তমের ছেলে সাগর (২২), রেনু মিয়ার ছেলে বিল্লাল (৩০), টোকনের ছেলে শফিক (২৬)। সাগরের পিতা রুস্তম কে জিজ্ঞাসা বাদের জন্য পুলিশ আটক করেছে। খানজাহান আলী থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ শফিকুল ইসলাম জানায় আসামীর পিতার কাছে তথ্য জানতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। সরোজমিনে গিয়ে জানা যায় আফিলগেট এলাকার একটি মসজিদের মোয়াজ্জিনের মেয়ে কে সাগর নামে একটি যুবক তাকে কেনা-কাটা করার প্রলোভন দেখিয়ে সারাদিন মটর সাইকেলে ঘুরে বেড়ায়, সন্ধ্যার পর আফিলগেট সিটিগেটের ও রেললাইনের পাশে মিজানের নির্মানাধীন বাড়িতে সাগর, বিল্লাল ও শফিক ৩জনে মিলে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। অসুস্থ্য অবস্থায় এলাকাবাসী উদ্ধার করে ফুলতলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে অবস্থার অবনতি হওয়ার পর খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে। এলাকাবাসী জানায় সাগরের সঙ্গে কিছুদিন ঘুরে মেয়েটির প্রেমের সম্পর্ক হয়। যার সূত্র ধরে স্কুল পালিয়ে সাগরের সঙ্গে ঘুরতে দেখা যায়।

ধর্ষিতা ওই স্কুল ছাত্রীর পিতা বলেন, আমি ওই তিন লম্পটের ফাঁসি চাই। যাতে আর  কোন  পিতাকে যেন ধর্ষিতা  মেয়ের বাবা হয়ে  বেঁচে থাকতে না হয়।