নিজেকে ট্রাম্পের মেয়ে দাবি করছেন এই পাকিস্তানি তরুণী

456

সারা দুনিয়া জানে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মেয়ে দুজন। একজন ইভানকা ট্রাম্প এবং অপরজন টিফানি ট্রাম্প। কিন্তু সম্প্রতি ওই তালিকায় আরও একজনের নাম যোগ হতে যাচ্ছে! অবিশ্বাস্য হলেও পাকিস্তানি এক মেয়ে নিজেকে ডোনাল্ড ট্রাম্পের মেয়ে বলে দাবি করেছেন।

নিজেকে ডোনাল্ড ট্রাম্পের মেয়ে দাবি করা ওই পাকিস্তানি তরুণীর নাম আম্মারা মাজহার। আম্মারার ভাষ্য অনুযায়ী, শিশুকালে তাকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে অপহরণ করা হয় এবং এরপর সে হেঁটে হেঁটে পাকিস্তান পৌঁছান। এমনকি ভারতে আটকে যাওয়ার পর শাহবাজ শরিফ নামের এক আঙ্কেল তাকে সাহায্য করেছেন।

আম্মারা বলেন, তিনি পাকিস্তানে ধর্মীয় পণ্ডিত ও তার শিক্ষকদের অভিভাবকত্বে কাটিয়েছেন। পায়ে হেঁটে বিশ্ব ভ্রমণ করা এই তরুণী আরও বলেন, রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের কারণে তার বাবা ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছ থেকে তাকে ছিনিয়ে নেয়া হয়।

আম্মারা বলেন, যখন আমি তার সঙ্গে দেখা করলাম সে আমাকে বললো যে আমার প্রাপ্য সব টাকা আমাদের রাজনীতিকদের দিয়ে দিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে পাঠানোর দাবি জানিয়ে সম্প্রতি লাহোর সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন আম্মারা। গণমাধ্যমকে আম্মারা বলেন, অনেকেই মনে করে যে আমি মুসলমান নই তাই তারা আমার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করে। আমি তাদের বলতে চাই যে আমি একজন মুসলমান।

আম্মারা আরও দাবি করেন যে, তিনি তার বাবাকে খুব মিস করেন, তার বাবাও তাকে খুব মিস করেন। নিজেকে সিরিয়াস উল্লেখ করে আম্মারা বলেন, আমাকে আমার বাবার কাছে পাঠানোর জন্য এখানে আপিল করতে এসেছি।

এই পাকিস্তানি তরুণীর এমন দাবির পর সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো আলোচনার ঝড় উঠেছে। সবাই বিভিন্ন ধরনের মন্তব্য করছে। তবে কেউ তার এই দাবিকে বিশ্বাস করেনি। বরং কারও কারও মতে তার যুক্তরাষ্ট্রের পাসপোর্ট পেতে এমনটা করছেন আম্মারা। আবার কারও বিশ্বাস তিনি মানসিকভাবে অসুস্থ।

এদিকে আম্মারার এমন দাবির পর মার্কিন কৌতুক অভিনেতা জেরেমি ম্যাকলেলান ব্যঙ্গ করে একটি টুইট লিখেছেন। সেখানে তিনি লিখেন, ‘ইমরান খানের ছেলে হিসেবে, আমি বিশ্বাস করতে পারছি না কেউ এমনভাবে মিথ্যা বলবে।’ এসময় নিজের একটি পুরনো টুইটও শেয়ার করেছেন এই কৌতুক অভিনেতা। যে টুইটে তিনি নিজেকে ইমরান খানের ছেলে দাবি করেছিলেন, যা পাকিস্তানের গণমাধ্যমগুলো বিশ্বাসও করেছিল।