ইসির সঙ্গে ২০–দলীয় ঐক্যজোটের বৈঠক

373
আজ রোববার বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন কমিশন ভবনে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সঙ্গে ২০–দলীয় ঐক্যজোটের এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে । নির্বাচন কমিশনের পক্ষে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম। অপর দিকে ২০–দলীয় জোটের নেতা ও লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) চেয়ারম্যান কর্নেল (অব.) অলি আহমদসহ অন্যরা বৈঠকে অংশ নেন।

বৈঠক শেষে অলি আহমদ ইসির সঙ্গে আলোচনার বিষয়বস্তু সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। আলোচনার উল্লেখযোগ্য বিষয়বস্তু হলো—

# নির্বাচনের সময় বিতর্কিত কর্মকর্তাদের এক জেলা থেকে অন্য জেলায় বদলি করা।
# নির্বাচন কমিশনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব জনগণের আস্থা অর্জন করা, যা নির্বাচন কমিশন এখন পর্যন্ত করতে পারেনি।
# বিরোধী দলগুলোর নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। ঘরে ঘরে গিয়ে ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে, রিমান্ডে নেওয়া হচ্ছে ও মিথ্যা মামলা দেওয়া হচ্ছে, যা সরকারের নীলনকশা বাস্তবায়নের চক্রান্ত। নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে দৃশ্যমান ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। কোনো ধরনের অঘটন ঘটলে এর দায়দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনকে বহন করতে হবে।
# নির্বাচনী আচরণ বিধিমালা অনুযায়ী, রাষ্ট্রীয় সুযোগ-সুবিধাভোগী ব্যক্তিদের সব সুযোগ-সুবিধা বন্ধের কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে।
# নির্বাচনকালীন সরকারের রেডিও এবং টেলিভিশন নির্বাচন কমিশনের সরাসরি নিয়ন্ত্রণে থাকা বাঞ্ছনীয়।
# নির্বাচনকালীন গণমাধ্যমের নিরপেক্ষতা নিশ্চিত করা।
# পুলিশের অনুরূপ সশস্ত্র বাহিনীকে নির্বাচনের সময় আইনশৃঙ্খলা ভঙ্গকারী ও দুষ্কৃতকারীদের গ্রেপ্তার করার ক্ষমতা দেওয়া।
# আগামী ১৫ ডিসেম্বর থেকে নির্বাচনী এলাকায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করা এবং টহল দেওয়ার জন্য পুলিশের সঙ্গে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা।
# ভোটের দিন নির্বাচনী এলাকায় ম্যাজিস্ট্রেটের সংখ্যা বাড়ানো।
# জনগণের ইচ্ছার বিরুদ্ধে ইভিএম ব্যবহার না করা।
# বিএনপিসহ নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের নেতাদের যথাযথ নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।