অভয়নগরে চুরির ঘটনা দেখে ফেলায় স্কুল পড়ুয়া দ্বিতীয় শ্রেনীর ছাত্রকে গলা কেটে হত্যা

450

শামছুজ্জামান মন্টু ( স্টাফ রিপোর্টার )
যশোরের অভয়নগর উপজেলার একতারপুর গ্রামের দীনমজুর মফিজুর মল্লিকের ছোট ছেলে দ্বিতীয় শ্রেনীর ছাত্র হাসিবুর রহমানের (৯) হত্যাকারিদের গ্রেফতার করেছে অভয়নগর থানার পুলিশ। জানা যায় হাসিবুর গত ৩নভেম্বর স্কুল থেকে বাড়ী আসার পর বিকালে ছিপ দিয়ে মাছ ধরতে যেয়ে আর বাড়ীতে ফিরে আসেনি। একপর্যায়ে ফিরে না আসার কারনে তার পরিবারের লোকেরা খুজাখুজি করে না পেয়ে হাসিবুরের চাচা সোহাগ হোসেন বাদী হয়ে অভয়নগর থানায় একটি মামালা দায়ের করে। পরের দিন সকালে হাসিবুরের লাশ সুপারি বাগনে দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনা স্থল থেকে হাসিবুরের গলা কাটা লাশ উদ্ধার করে। গত সোমবার গভীর রাতে থানা ওসি মোঃ আলমগীর হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলি উপজেলার একতাপুর গ্রাম থেকে হত্যাকারী আবুল কাসেম (১৯) এবং মোস্তাকিন (১৫) নামের দুইজনকে আটক করে। পরে তাদের স্বীকারোক্তি মোতাবেক পুলিশ হাসিবুর রহমানকে হত্যায় ব্যবহৃত ছুরি ঘটনা স্থলের পাশের একটি পুকুর থেকে উদ্ধার করে। থানার ওসি মোঃ আলমগীর হোসেন জানান, ঘটনার দিন সন্ধ্যায় হত্যকারি আবুল কাসেম ও মোস্তাকিন দুজনে মিয়ে গাছ থেকে সুপারি চুরি করছিল। এসময় হাসিবুর তাদের দেখে ফেলে। তখন হাসিবুর চুরি করার বিষয়টি ফাঁস করার কথা বললে তারা হাসিবুরকে ধরে ছুরি দিয়ে জবাই করে হত্যা করে লাশ সুপারি বাগানে ফেলে রেখে রেখে চলে যায়। হত্যাকারীদের জেল হাজতে প্রেরণ করেন থানা পুলিশ।