আমরা সমাধান পাইনি : সংবাদ সম্মেলনে ড. কামাল হোসেন

529

গণফোরাম সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতা ড. কামাল হোসেন বলেছেন, ‘আমরা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ৩ ঘণ্টারও বেশি সময় আলোচনা করেছি। আমাদের দাবি তুলে ধরেছি। তিনি (শেখ হাসিনা ) লম্বা বক্তব্য দিয়েছেন। কিন্তু আমরা কোনও সমাধান পাইনি।’

বৃহস্পতিবার রাতে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন ১৪ দলের সঙ্গে সংলাপ শেষে বেইলি রোডে নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন ড. কামাল হোসেন।

এসময় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আমরা সন্তুষ্ট নই, আগেই বলেছি। ঐক্যফ্রন্টের দেয়া কর্মসূচি চলবে। বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির ব্যাপারে দাবি জানিয়েছি। এ ব্যাপারে কোনো সদুত্তর পাইনি।’

আসম আব্দুর রব বলেন, আমাদের ৭ দফার আন্দোলন চলবে।

গনফোরামের নির্বাহী সভাপতি এডভোকেট সুব্রত চৌধুরী বলেন, আজকের সংলাপে ড. কামাল হোসেন সুচনা বক্তব্য উপস্থাপন করেন। এছাড়াও বিএনপি মহাসচিব ৭ দফা দাবি উত্থাপন করেন’।

আলোচনা সৌহার্দ্যপূর্ণ হয়েছে : ১৪ দল
বাসস

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রীর সাথে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সংলাপ শেষে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের নেতারা বলেছেন, আলোচনা সৌহার্দ্যপূর্ণ ও ভালো হয়েছে।
আজ বৃহষ্পতিবার রাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাসভবন গণভবনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের সঙ্গে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সংলাপ শেষে নেতৃবৃন্দ সংবাদিকদের এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরও সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে বলেন, ‘আলোচনায় বেশ কিছু অগ্রগতি রয়েছে। ড. কামাল হোসেন সাহেব আলোচনায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, তিনি আলোচনায় সন্তুষ্ট। এখানে এসে এমন অনেক কিছু জানতে পেরেছেন, যা আগে তিনি জানতেন না।’
সন্ধ্য সাড়ে সাত টায় শুরু হয়ে এই সংলাপ শেষ হয় রাত ১০টা ৩৫ মিনিটে। কামাল হোসেনের নেতৃত্বে ঐক্যফ্রন্টের ২১ সদস্যের প্রতিনিধিদল এ বৈঠকে অংশ নেয়।
অন্যদিকে ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন সাংবাদিকদের বলেন, সাত দফা দাবি নিয়ে খোলামেলা আলোচনা হয়েছে।

সাম্যবাদী দলের সাধালন সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া বলেন, আলোচনা ভালো হয়েছে। সভা-সমাবেশ করতে কোনো বাধা দেয়া হবে না বলে জানানো হয়েছে।
গণভবন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা আমির হোসেন আমু সাংবাদিকদের বলেন, বরফ গলতে শুরু করেছে।
কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আলোচনা সৌহার্দ্যপূর্ণ হয়েছে। সাত দফা নিয়ে খোলামেলা আলোচনা হয়েছে।
আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্লাহ বলেন, আলোচনা সফল হয়েছে। বরফ গলেছে। কিন্তু একদিনে সকল কিছু সমাধান সম্ভব নয়।
আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, আলোচনা সফল হয়েছে। ড. কামাল আমাদের অনেক প্রস্তাবেই সম্মত হয়েছেন।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান বলেন, আলোচনা ফলপ্রসূ হয়েছে। খালেদা জিয়ার বিষয়টি আইন-আলাদতের বিষয়। এটা আদালত দেখবেন।
তিনি বলেন, নির্বাচন অবাধ-সুষ্ঠু-নিরপেক্ষ হবে, এ আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিএনপি নেতাদের মামলার বিষয়েও তালিকা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। সেগুলো বিচার-বিশ্লেষণ করা হবে। সূত্র : নয়াদিগন্ত