ফকিরহাটে বিদেশে চাকুরীর প্রলোভন দেখিয়ে, ৯লক্ষ ৫৫হাজার টাকা আত্মসাত  ,আদালতে মামলা দায়ের

314

বাদশা আলম, ফকিরহাট।
বাগেরহাটের ফকিরহাটে বিদেশে ভাল বেতনে চাকুরী দেওয়ার কথা বলে অসহায় একটি পরিবারের কাছ থেকে ৯লক্ষ ৫৫হাজার টাকা হাতিয়ে নেওয়া হয়েছে। অসহায় পরিবারটি বিচারের দাবীতে বিভিন্ন স্থানে ধর্না দিয়ে কোন সুফল না পেয়ে অবশেষে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। আদালতে দায়েরকৃত মামলার অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার লখপুর ইউনিয়নের জাড়িয়া মাইট কুমরা গ্রামের মুতঃ ইউসুফ আলী ফারাজীর পুত্র মোঃ কবির ফারাজী তার পুত্র জাবের ফারাজীকে সৌদী আরবে ভাল বেতনে চাকুরী দেওয়ার কথা বলে ভবনা গ্রামের মুতঃ এলাহী শেখ এর স্ত্রী ওম্মে বেগম (৫৫) ও দুই পুত্র মোঃ নাহিদ শেখ (৩২) ও সাজ্জাদ শেখ (৪৫) বিভিন্ন সময়ে ব্যাংকের মাধ্যমে উপরোক্ত অর্থ হাতিয়ে নেয়। অভিযোগে কবির ফারাজী বলেন সদ্য নির্মানাধীন খুলনা-মংলা রেল প্রকল্পে তার জমি বেধে যাওয়ায় রেল কর্তৃপক্ষ তার জমি অধিগ্রহন করেন। সেই জমি অধিগ্রহনে তিনি ক্ষতিপূরন বাবদ উপরোক্ত টাকা পেয়েছেন। সেই টাকা সন্তানদের সুখের কথা চিন্তা করে সম্পূন্ন টাকা উক্ত ব্যাক্তিদের হাতে তুলে দেন। কিন্তু তারা তার সন্তানকে সৌদী আরবে নিয়ে ভাল বেতনে চাকুরী না দিয়ে নিজের ইলেট্রিক দোকানে মাসিক ৫৫হাজার টাকা চুক্তি মোতাবেক তিন মাস কাজ করালেও কোন বেতনাদী প্রদান করেননী। সৌদীর নিয়মানুসারে ৯০দিনের মধ্যে আসামী মোঃ নাহিদ শেখ উক্ত জাবের ফারাজীকে আকামার টাকা কোফিলের নিকট জমা না দেওয়ায় তাহার আকামা দেয় না। উল্টো তাকে মারপিট করিয়ে সুকৌশলে সে দেশের পুলিশে সোপাদ করে। এর পর সৌদী পুলিশ তাকে দেশে ফেরত পাঠাই। তারা তার ছেলেকে রিক্রুটিং এজেন্ট না হইয়াও বিদেশে চাকুরী প্রদানের উদ্দেশ্যে বর্হিগমনে প্রলুদ্ধ করিয়া অর্থ আদায় করিয়াছে। যাহা বর্হিগমন অধ্যাদেশ ১৯৮২ এর ২০(২) (ক)(খ) ও ২১,২৩(খ) ধারার অপরা। এব্যাপারে তিনি বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমল আদালত, ফকিরহাট,বাগেরহাটে একটি মামলা দায়ের করেছেন। যার সি.আর-২০৭/২০১৮।